ঘাতক ক্যান্সারকে হারিয়ে দিচ্ছেন বিশ্বকাপজয়ী ক্লার্ক

ক্রীড়া প্রতিবেদক ।

কর্কটক্রান্তীয় অঞ্চলের দেশ হওয়ায় অস্ট্রেলিয়ানদের মধ্যে স্কিন ক্যান্সারের ঝুঁকিটা তুলনামূলক বেশি। সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মি সরাসরি এসে পড়ে দেহে। দেশটির জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্কও এই ঘাতকব্যধিতে আক্রান্ত। ২০০৬ সালে ক্যান্সার ধরা পড়ার পর চিকিৎসকদের কাছে নিয়মিত যেতে হয় তাকে। এই মারণব্যধির বিরুদ্ধে লড়াই করতে করতে এখন পর্যন্ত বিজয়ী হয়ে আসছেন ২০১৫ বিশ্বকাপজয়ী এই অধিনায়ক।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

গত শনিবার নিজের ইনস্টাগ্রাম ওয়ালে ক্যান্সারের সঙ্গে যুদ্ধের একটা ছবি পোস্ট করেন ক্লার্ক। সেখানে দেখা যাচ্ছে, মাথার এলোমেলো চুলে হাত দিয়ে আছেন তিনি। কপালের ঠিক মাঝখানে সেলাইয়ের দাগ। এখান থেকেই ক্যান্সার আক্রান্ত ত্বক কেটে ফেলে দেওয়া হয়েছে।ছবির ক্যাপশনে ক্লার্ক লিখেছেন, ‘আরেকটা দিন। আমার চেহারা থেকে আরেকটি ক্যান্সার সরিয়ে ফেলা হলো।’

গত বছর ক্লার্কের দেহ থেকে বিপজ্জনক একটি টিউমার অপসারণ করা হয়। এরপর থেকে প্রতি বছর অন্তত দুবার চিকিৎসকদের কাছে যেতে হয় তাকে। চলতি বছর আবারও ক্যান্সার ধরা পড়লে দ্রুতই সেটা অপসারণ করা হয়। ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের পাশাপাশি মানুষকে সচেতন করার কাজটিও করে থাকেন সাবেক অজি ক্যাপ্টেন। তিনি লিখেছেন, ‘তরুণদের বলছি, সবসময় সূর্যের ক্ষতিকর দিক থেকে বাঁচার জন্য সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণ কর।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *