বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১০:৩৬ অপরাহ্ন

বন্দুক নিয়ন্ত্রণ আইনের পথে এগোচ্ছে মার্কিন সিনেট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন, ২০২২
  • ৪০ দেখা হয়েছে

 

প্রকাশ : ২৩ জুন ২০২২(বৃহস্পতিবার)০৩:৩০এএম

যুক্তরাষ্ট্রের আইনপ্রণেতাদের দ্বিদলীয় একটি গ্রুপ কয়েক দশকের মধ্যে প্রথমবারের মতো উল্লেখযোগ্য একটি বন্দুক নিয়ন্ত্রণ আইন প্রস্তাব করেছে। তাদের উত্থাপিত বিলের ওপর চলতি সপ্তাহে মার্কিন সিনেটে ভোটাভুটি হতে পারে।খবর ক্রাইম রিপোর্টার২৪.কমের।

পরপর দুটি নির্বিচার গুলিবর্ষণের ঘটনায় শিশুসহ বহু মানুষ নিহত হওয়ার পর বন্দুক সহিংসতায় নিমজ্জিত মার্কিন সমাজে বন্দুক নিয়ন্ত্রণ আইনের জোরালো দাবি উঠেছে।

৮০ পাতার এই বিলটিতে যেসব বিধানের প্রস্তাব করা হয়েছে তাতে ‘যাদের নিজেদের ও অন্যদের জন্য বিপজ্জনক বলে মনে করা হয়’ তাদের হাতে বন্দুক যাওয়া বন্ধ করতে পারবে অঙ্গরাজ্যগুলো। এর পাশাপাশি অবিবাহিত অন্তরঙ্গ অংশীদারদের সঙ্গে সহিংস আচরণের জন্য অভিযুক্তদের কাছেও বন্দুক বিক্রি বন্ধ করা যাবে। নিউ ইয়র্কের একটি মুদির দোকানে এবং টেক্সাসের একটি এলিমেন্টারি স্কুলে কিশোর বয়সীদের ঘটানো নির্বিচার গুলিবর্ষণের পর প্রস্তাবিত এ আইনে অঙ্গরাজ্যগুলো বন্দুক কেনার জন্য জাতীয় ব্যাকগ্রাউন্ড চেক সিস্টেমে কিশোর বয়সের রেকর্ড সরবরাহের অনুমোদন দিতে পারবে। সিনেটর ক্রিস মার্ফি সিনেটে বলেছেন, ‘আমি বিশ্বাস করি, চলতি সপ্তাহেই প্রস্তাবিত আইনটি পাশ করতে পারব আমরা। এটি ৩০ বছরের মধ্যে কংগ্রেসের পাশ করা বন্দুক সহিংসতা বিরোধী সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য আইন হবে।’ সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা চাক শুমার সম্ভাব্য দ্রুততার সঙ্গে বিলটি এগিয়ে নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, ‘এই দ্বিদলীয় বন্দুক নিরাপত্তা আইন জীবন বাঁচাবে। আমরা যা চাই তার সবটা না হলেও এই আইন জরুরিভাবে দরকার।’ এক বিবৃতিতে এই আইনের প্রতি নিজের সমর্থন জানিয়ে সিনেটের সংখ্যালঘু দলের নেতা মিচ ম্যাককনল আইনটিকে ‘কমনসেন্স প্যাকেজ’ বলে বর্ণনা করেছেন। দুই দলের মধ্যে সমানভাবে বিভক্ত মার্কিন সিনেটে এ আইন পাশ হতে অন্তত ১০ রিপাবলিকান সিনেটরের সমর্থন লাগবে। টুইটারে যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তম গান লবি ন্যাশনাল রাইফেলের অ্যাসোসিয়েশন বলেছে, তারা এ আইনের বিরোধী কারণ এটি আইনিভাবে বন্দুক ক্রয়ের ক্ষেত্রে বাধা তৈরি করতে ব্যবহার হতে পারে।খবর ক্রাইম রিপোর্টার২৪.কমের।

শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরো খবর

সম্পাদক ও প্রকাশক

মুহাম্মদ মিজানুর রহমান চৌধুরী

© All rights reserved by Crimereporter24.com
themesba-lates1749691102