বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০৯:১০ অপরাহ্ন

শক্ত থাকতে খুব চেষ্টা করছি: মৌসুমী

বিনোদন প্রতিবেদক।
  • আপডেট সময় : শনিবার, ১৮ জুন, ২০২২
  • ৬২ দেখা হয়েছে

 

প্রকাশ : ১৮ জুন ২০২২(শনিবার) ১৮:১৩পিএম

গত কয়েকদিনে ঢাকাই সিনেমা জগতে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বয়ে গেছে। জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা মৌসুমীকে কেন্দ্র করে জায়েদ খানের সঙ্গে ওমর সানীর বিবাদ, একটি বিয়ের আসরে চড়-পিস্তল কাণ্ড, শিল্পী সমিতিতে লিখিত অভিযোগ, অডিও-ভিডিও বার্তা; কত কিছুই ঘটে গেল।খবর ক্রাইম রিপোর্টার২৪.কমের।

এসব কাণ্ডে গুঞ্জন ওঠে, ফাটল ধরেছে ওমর সানী ও মৌসুমীর সংসারে। ঢালিউডের অন্যতম সফল ও জনপ্রিয় এই দম্পতির সম্পর্কে এমন গুঞ্জনে মনঃক্ষুণ্ণ হয় ভক্তদের। তবে সেই গুঞ্জনে জল ঢেলে দেন ওমর সানী।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে ফেসবুকে তিনি একটি ছবি শেয়ার করেন। যেখানে দেখা যায়, এক টেবিলে বসেই খাবার খাচ্ছেন সানী-মৌসুমী। সঙ্গে আছেন তাদের ছেলে ফারদিনসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা।

ছবির ক্যাপশনে নায়ক লেখেন, ‘সবাই ভালো থাকবেন, দোয়া করবেন আমাদের জন্য।’

ওই ছবি ও সানীর ক্যাপশন দেখে ভক্ত-শুভাকাঙ্ক্ষীরা ধরে নেন, তাদের মধ্যকার দূরত্বের অবসান হয়েছে। তবে সাম্প্রতিক ঘটনাগুলো মৌসুমীর মনকে খুব বেশি আঘাত করেছে। তাই হয়ত স্বাভাবিক হতে, নিজেকে সামলে নিতে মনস্তাত্ত্বিক সংগ্রাম করতে হচ্ছে তাকে। তেমন ইঙ্গিত পাওয়া গেল অভিনেত্রীর সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দেখে।

শুক্রবার (১৭ জুন) রাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি পোস্ট করেন মৌসুমী। যেখানে তাকে এলো চুলে দেখা গেছে।

ছবির ক্যাপশনে মৌসুমী লেখেন, ‘বৃষ্টিতে ভিজে গেলাম, বৃষ্টিও বলে লিলি ফ্লাওয়ারস তোমার জন্য। ভিজে ভিজে কিছু কথা মনে হলো, কোনো একসময় বলব যদি বেঁচে থাকি ইনশাআল্লাহ। খুব চেষ্টা করছি শক্ত থাকতে, অভিমানী মন বড় দুর্বল। নিজের দুর্বলতা অন্য কারো ওপর চাপিয়ে কেউ ভালো থাকতে পারে না। কষ্ট আমি নিলাম, সুখ তোমাকে দিলাম।’

মৌসুমী বরাবরই ধরা-ছোঁয়ার বাইরে থাকতে পছন্দ করেন। পর্দার বাইরে তাকে পাওয়া দুষ্কর। মোবাইল ফোন কিংবা সোশ্যাল মিডিয়াতেও তেমন সরব নন অভিনেত্রী। তাই তাকে ঘিরে সানী-জায়েদের বিবাদের সময়ও গণমাধ্যমকর্মীরা তার বক্তব্য নিতে পারেননি। পরে মৌসুমী নিজেই আড়ালে থেকে একটি অডিও বিবৃতি সবার উদ্দেশ্যে দেন। যেখানে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেন।খবর ক্রাইম রিপোর্টার২৪.কমের।

শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরো খবর

সম্পাদক ও প্রকাশক

মুহাম্মদ মিজানুর রহমান চৌধুরী

© All rights reserved by Crimereporter24.com
themesba-lates1749691102