শিরোনাম

ক্রীড়াঙ্গনে কাজের মাধ্যমে কোকো নিজেকে স্মরণীয় করেছেন : বিএনপি মহাসচিব

বিশেষ প্রতিবেদক ।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘মরহুম রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কনিষ্ঠ পুত্র আরাফাত রহমান কোকো কোনও রাজনীতিবিদ ছিলেন না, তিনি একজন ক্রীড়া সংগঠক ছিলেন। অতি অল্প সময়ের মধ্যে ক্রীড়াঙ্গনে বিভিন্ন কাজের মাধ্যমে কোকো নিজেকে স্মরণীয় করে রেখেছেন।’খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

রবিবার (২৪ জানুয়ারি) সকালে আরাফাত রহমান কোকোর ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বনানী কবরস্থানে মরহুমের কবর জিয়ারত শেষে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘একজন আরাফাত রহমান কোকো সৃষ্টি হয়েছিলেন বাংলাদেশের উন্নয়নের জন্য, সৃষ্টি হয়েছিলেন ক্রীড়াঙ্গনের উন্নয়নের জন্য। আমরা আজকে তার মৃত্যুবার্ষিকীতে তার কবর জিয়ারত করেছি।’

এ সময় যুবদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুল ইসলাম নিরব, বিএনপির ক্রীড়া সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান ও ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েলসহ শতাধিক নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

১৯৬৯ সালের ১২ আগস্ট তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের (বর্তমান বাংলাদেশ) কুমিল্লায় আরাফাত রহমান কোকোর জন্ম। আরাফাত রহমান শর্মিলা রহমানকে বিয়ে করেন। তাদের দুই মেয়ে জাহিয়া রহমান ও জাফিয়া রহমান।

২০১৫ সালের ২৪ জানুয়ারি মালয়েশিয়ায় হৃদরোগে আক্রান্ত হন আরাফাত রহমান কোকো। ওই দিন বাংলাদেশ সময় দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে অসুস্থ অবস্থায় মালয়েশিয়ার ন্যাশনাল হাসপাতালে নেওয়ার পথে মাত্র ৪৫ বছর বয়সে মারা যান তিনি। পরে ২৮ জানুয়ারি তার মরদেহ দেশে আনা হয়। ওই দিনই বনানী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *