শিরোনাম

স্বামীর পরকীয়া হাতেনাতে ধরলেন স্ত্রী, দিলেন বর্বরোচিত শাস্তি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।

অন্য নারীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করার সময় হাতেনাধে ধরা পড়েন স্বামী। অন্য নারীর সঙ্গে হাতনাতে স্বামীকে দেখতে পাওয়ার পর তাকে বেধড়ক মারেন স্ত্রী। এখানেই শেষ নয়, প্রাচীন বর্বরতার অনুসরণে একটি খাঁচার মধ্যে স্বামীকে বেঁধে নদীর জলে ফেলে দিলেন। ঘটনাটি ঘটেছে চীনের মাওমিং শহরে। ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে ভিডিওটি।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরেই অন্য এক নারীর সঙ্গে সম্পর্ক ছিল অভিযুক্ত ওই ব্যক্তির। এর মধ্যেই একদিন হাতেনাতে ধরা পড়ে যান স্ত্রীর কাছে। এরপরই স্বামীকে মারধর করেন ওই নারী। তারপর আরও কয়েকজন ব্যক্তির সাহায্য নিয়ে স্বামীকে একটি খাঁচার মধ্যে দড়ি দিয়ে বেঁধে নদীর জলে ফেলে দেন। আর পুরো ঘটনাটির ভিডিও ধরা পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। দেখা যায়, মারধর এবং বাঁধার সময় রীতিমতো কাঁদছিলেন ওই ব্যক্তি। কিন্তু তাতেও মন গলেনি স্ত্রীর।

যে শাস্তি ওই ব্যক্তিকে দেওয়া হয়েছে, তার প্রচলন ছিল প্রাচীন চীনে। জানা গেছে, প্রাচীন মিং রাজাদের আমলে এই রীতির প্রচলন ছিল। দোষী ব্যক্তিকে যাতে পানিতে ফেলেও দিলেও সে পালাতে না পারে, সেজন্য ওই খাঁচার সঙ্গে বেঁধে ফেলা দেওয়া হত। যদিও এই ঘটনায় প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন ওই ব্যক্তি। কোনোরকমে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এই ঘটনায় জড়িত থাকায় এরই মধ্যে চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *