শিরোনাম

জনস্বাস্থ্যের পরিচালক ক্ষমা চাইলেন

নিজস্ব প্রতিবেদক ।

জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের পরিচালক মুহাম্মদ আব্দুর রহিম ইনস্টিটিউটে কর্মরত মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের পর্দা মেনে চলার নির্দেশ বাতিল করেছেন। বুধবারের দেওয়া নির্দেশ বৃহস্পতিবার বিকেলে এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বাতিল করা হয়।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

মুহাম্মদ আব্দুর রহিম বলেছেন, ‘উক্ত বিজ্ঞপ্তিতে প্রকাশিত সংবাদটির জন্য আন্তরিকভাবে দুঃখিত এবং সকলের কাছে এই অনিচ্ছাকৃত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের জন্য অন্তরের অন্তস্থল থেকে দুঃখ প্রকাশ করছি এবং সেই সাথে গোটা জাতির কাছে বিনীতিভাবে ক্ষমা প্রার্থনা করছি এবং এই ধরনের ভুল হবে না বলে প্রতিজ্ঞা করছি।’

এর আগে বুধবার এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের পরিচালক মুহাম্মদ আবদুর রহিম ইন্সটিটিউটের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্দেশে নোটিশ জারি করেন। নোটিশে বলা হয়, ‘অত্র ইন্সটিটিউটের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, অফিস চলাকালীন সময়ে মোবাইল সাইলেন্ট/বন্ধ রাখা এবং মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের জন্য পুরুষ টাকনুর ওপরে এবং মহিলা হিজাবসহ টাকনুর নিচে কাপড় পরিধান করা আবশ্যক এবং পর্দা মানিয়া চলার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হল।’

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন জনস্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটে কর্মরতদের পোশাক বিধি নির্ধারণ করে বিজ্ঞপ্তি দেওয়ায় জনস্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের পরিচালককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

বৃহস্পতিবার মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের উপ-সচিব শারমিন আক্তার জাহান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে তাকে এ নোটিশ দেয়া হয়। আগামী তিন দিনের মধ্যে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছিল।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *