শিরোনাম

মণ্ডপে মণ্ডপে বিদায়ের সুর আজ বিজয়া দশমী

নিজস্ব প্রতিবেদক ।

আজ মর্ত্য ছাড়বেন দুর্গতিনাশিনী। ফিরবেন কৈলাসে। অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে শুভ ও কল্যাণ এবং সব মানুষের মধ্যে নিরন্তর শান্তি ও সম্প্রীতির আকাঙ্ক্ষা নিয়ে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে আজ সমাপ্তি ঘটবে হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় উত্সব শারদীয় দুর্গাপূজা। আজ শুভ বিজয়া। শাস্ত্র অনুযায়ী শাপলা, শালুক আর বলিদানের মাধ্যমে দেবীর পূজা হবে। তাই ঢাকের বোলে নিনাদিত হচ্ছে ‘ঠাকুর থাকবে কতক্ষণ ঠাকুর যাবে বিসর্জন’। সমসনাতন বিশ্বাসে বোধনে ‘অরুণ আলোর অঞ্জলি নিয়ে দুর্গার আগমন ঘটে। টানা পাঁচ দিন মৃন্ময়ীরূপে মণ্ডপে মণ্ডপে থেকে আজ ফিরে যাবেন কৈলাসে স্বামী শিবের সান্নিধ্যে।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

দূর কৈলাস ছেড়ে দুর্গা পিতৃগৃহে আসেন দোলায় চড়ে। আজ বিজয়া দশমীতে এয়োস্ত্রীদের দেবীবরণ ও সিঁদুর খেলার পর বিদায় নেবেন গজে করে। আজ অনেকে উপবাস করবেন। এবার করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে পূজার আয়োজন করা হয়েছে সীমিত পরিসরে। উত্সব সংশ্লিষ্ট বিষয় পরিহার করে সাত্ত্বিক পূজায় সীমাবদ্ধ রাখা হয়েছে। গতকাল নবমীর দিনে মণ্ডপে মণ্ডপে প্রসাদ বিতরণ এড়ানো হয়েছে। সেসঙ্গে সন্ধ্যায় আরতিও বন্ধ ছিল। ভক্ত-সমাগম যেন না ঘটে, এজন্য সন্ধ্যার আগে বন্ধ করা হয় পূজামণ্ডপ। ছিল না সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও ধুনুচি নাচের প্রতিযোগিতা। জনসমাগমের কারণে স্বাস্থ্যবিধি যাতে ভঙ্গ না হয় সেদিকে খেয়াল রেখেই প্রসাদ বিতরণ ও বিজয়া দশমীর শোভাযাত্রা নিষিদ্ধ করা হয়। সারা দেশে এবার মোট ৩০ হাজার ২৩১টি মণ্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হয়। গতবারের থেকে করোনার কারণে এবার ১ হাজার ১৮৫টি মণ্ডপে পূজা কম হয়।

এদিকে গতকাল নীলকণ্ঠ, নীল অপরাজিতা ফুল ও যজ্ঞের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয় নবমী বিহিত পূজা। সনাতন বিশ্বাসে-ধর্মের গ্লানি আর অধর্ম রোধ, সাধুদের রক্ষা, অসুরের বধ আর ধর্ম প্রতিষ্ঠার জন্য প্রতি বছর দুগর্তিনাশিনী দেবী দুর্গা ভক্তদের মধ্যে আবির্ভূত হন। শুভ বিজয়ার মাধ্যমে জাগতিক প্রাণীকে শোনান সাম্য ও ভ্রাতৃত্বের বাণী। বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক নির্মল কুমার চ্যাটার্জি বলেন, বিজয়া দশমীর দিন শোভাযাত্রা পরিহার করে প্রতিমা বিসর্জনের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট মণ্ডপ বা মন্দির কর্তৃপক্ষ নিজ উদ্যোগে স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রতিমা বিসর্জনের ব্যবস্থা নেবেন।

বিজয়া দশমী উপলক্ষ্যে আজ সরকারি ছুটির দিন। পূজা উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বাণী দিয়েছেন।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *