শিরোনাম

চীনকে মোকাবেলায় পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরে নৌঘাঁটি বানাবে যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ উপদেষ্টা শুক্রবার(২৩ অক্টোবর) চীনের সমালোচনা করে এক বিবৃতিতে বলেছেন, পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগর অঞ্চলে বেশ কিছুদিন হলো অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি করেছে চীন । মূলত সে জন্যই সেখানে নৌঘাঁটি বানানো হবে এবং মার্কিন কোস্ট-গার্ডের টহল জাহাজ মোতায়েন করা হবে বলে জানান তিনি।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউসের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা রবার্ট ও’ব্রায়েন বলেন,চীনের অবৈধ,অপরিকল্পিত, নিয়ন্ত্রণহীন মাছ ধরা এবং ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে অবস্থিত অন্যান্য দেশের একচেটিয়া অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে চলাচল করা জাহাজগুলোর ওপর হয়রানি আমাদের সার্বভৌমত্বের জন্য হুমকির। পাশাপাশি আমাদের প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের প্রতিবেশীদের সার্বভৌমত্ব এবং আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা বিপন্ন করছে চীন। মার্কিন এই পদক্ষেপ চীনের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করবে বলে তিনি আশা করেন।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেও চলতি মাসে টোকিওতে কোয়াডের একটি সভার নেতৃত্ব দেন।এ থেকে ওয়াশিংটন আশা করছে যে যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, ভারত এবং অস্ট্রেলিয়ার ঐক্যের মাধ্যমে দক্ষিণ চীন সাগরের প্রায় পুরো অঞ্চলজুড়ে চীনের এই সামুদ্রিক আগ্রাসনের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারবে।

মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপার সম্প্রতি অভিযোগ করেন যে,চীনা সামরিক বাহিনী প্রতিনিয়িতই ভিয়েতনামী ফিশিং নৌকা ডুবিয়ে দিচ্ছে শুধু তাই না মালয়েশিয়ার তেল ও গ্যাসবাহী জাহাজগুলিকে নানা হয়রানি করেছে তারা। এদিকে ক্ষুব্ধ চীন দ্বীপ ও দ্বীপপুঞ্জের উপর সামরিক ফাঁড়ি গড়ে তুলেছে এবং ভিয়েতনাম, মালয়েশিয়া, তাইওয়ান এবং ফিলিপাইন সহ পুরো দক্ষিণ চীন সাগরকে নিজের বলে দাবি করছেন মার্ক এসপার । খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *