শিরোনাম

পায়েলকে শয্যাসঙ্গিনী হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন অনুরাগ

বিনোদন প্রতিবেদক ।

বিনোদন দুনিয়ায় কাস্টিং কাউচ নতুন কিছু নয়। কাস্টিং কাউচ নিয়ে বলিউডে চলছে বিস্তর অভিযোগ। সেই তনুশ্রী দত্ত থেকে একে একে পরিচালক, প্রযোজক কিংবা অভিনেতাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছুড়ে দিচ্ছেন বড় বড় অভিনেত্রী। এবার বলিউডের জনপ্রিয় চলচ্চিত্র পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ করলেন পায়েল ঘোষ। বাঙালিকন্যা পায়েলের ওই বিস্ফোরক অভিযোগের পর ফের শোরগোল শুরু হয়েছে বি টাউনে।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

ভারতীয় একটি গণমাধ্যমকে পায়েল বলেন, অনুরাগ কাশ্যপের বিরুদ্ধে যে বিস্ফোরক অভিযোগ তিনি করেছেন তা আজকের নয়। ২০১৫-১৬ সাল নাগাদ অনুরাগ তার সঙ্গে ওই ধরনের অশ্লীল ব্যবহার করেন।

মডেলের দাবি, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে যখন তিনি পা রাখতে শুরু করেন সবে সবে, সেই সময় একবার অনুরাগ কাশ্যপের সঙ্গে তার অফিসে দেখা করতে যান তিনি। অনুরাগের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার পর প্রথম দিন তাকে বেশ অনেকটা সময় বসিয়ে রেখে অপেক্ষা করান পরিচালক। যদিও সেদিন তার সঙ্গে অনুরাগ কোনও কথা বলেননি। পরদিন ফের পায়েল যাতে পরিচালকের সঙ্গে দেখা করতে যান সে কথা জানানো হয়।

প্রথমদিনের পর পায়েল যখন দ্বিতীয় দিন অনুরাগের সঙ্গে দেখা করতে যান। তখন পরিচালক মদ্যপান করছিলেন। সেই সঙ্গে চলছিল তার ধূমপানের পালাও। যা সাধারণ সিগারেটের ধোঁয়া নয় বলে দাবি করেন পায়েল। এরপরই পায়েলকে মদ্যপানের প্রস্তাব দেন অনুরাগ। শুধু তাই নয়, তাকে নির্জন ঘরে ডেকে নিয়ে গিয়ে নীল ছবি চালিয়ে দিয়ে অশ্লীল ব্যবহার শুরু করেন অনুরাগ। যা দেখে ওইদিন কার্যত ঘাবড়ে যান পায়েল। তিনি ওইদিন কোনওভাবেই প্রস্তুত নন বলে পরিচালককে জানান। যা শুনে অনুরাগ বেশ খানিকটা বিরক্ত হন।

বঙ্গকন্যার দাবি, ওই সময় অনুরাগ বম্বে ভেলভেটের শ্যুটিং করছিলেন। ফলে তিনি নেশায় আচ্ছন্ন হয়ে বলতে শুরু করেন। হুমা কুরেশি থেকে রিচা চাড্ডা, বলিউডের অনেক অভিনেত্রীকেই জনপ্রিয় করেছেন তিনি। ফলে হুমা, রিচাদের যখনই ডাকেন, তারা তখন অনুরাগের কাছে এসে হাজির হন বলে পায়েলকে জানান পরিচালক। শুধু তাই নয়, ফিল্মি কেরিয়ারে তিনি কমপক্ষে ২০০ জনকে শয্যাসঙ্গিনী করেছেন বলেও পায়েলকে স্পষ্ট জানান অনুরাগ। ওইদিনের ঘটনার পর তিনি আর কখনও অনুরাগ কাশ্যপের সঙ্গে দেখা করা তো দূরে থাক, কখনও যোগাযোগও করেননি বলে দাবি করেন পায়েল। খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *