20_2
চির প্রতিদ্বন্দ্বী দুই দেশ পাকিস্তান এবং ভারত পরমাণু অস্ত্রের মজুদ অব্যাহভাবে বাড়িয়ে চলেছে। এ তথ্য দিয়েছে সুইডেনভিত্তিক ‘স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইন্সটিটিউট’ বা এসআইপিআরআই। সংস্থাটি তাদের বার্ষিক প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরেছে।
তবে পরিসংখ্যান বলছে পরমাণু অস্ত্র মজুদের ক্ষেত্রে ভারতের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে পাকিস্তানই।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পাকিস্তানের অস্ত্র ভাণ্ডারে ১০০ থেকে ১২০টি এবং ভারতের ৯০ থেকে ১০০টি পরমাণু বোমা রয়েছে। তুলনামূলকভাবে দেশ দু’টির পরমাণু অস্ত্র ভাণ্ডারকে ছোটই বলা যায়। তবে দেশ দু’টি তাদের পরমাণু বোমার সংখ্যা অব্যাহতভাবে বাড়িয়ে যাচ্ছে।
ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ঘোষণা দেয়া ছাড়া চির প্রতিদ্বন্দ্বী দেশ দু’টি পরমাণু অস্ত্র বিষয়ক আর কোনো প্রকাশ্য ঘোষণা দেয় না বলে এতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি, এশিয়ার পরাশক্তি চীনও নিজের পরমাণু অস্ত্র ভাণ্ডার নিয়ে খুব কম তথ্য প্রকাশ করে।
এ খবরে আরো বলা হয়েছে, ফ্রান্সের অস্ত্র ভাণ্ডারে ৩০০, ব্রিটেনের ২১৫ এবং চীনের ২৬০টি পরমাণু বোমা রয়েছে। এ ছাড়া, উত্তর কোরিয়ার ছয় থেকে আটটি পরমাণু বোমা রয়েছে উল্লেখ করে এসআইপিআরআই বলেছে, পিয়ংইয়ং-এর পরমাণু প্রযুক্তির অগ্রগতি নির্ধারণ করা বেশ কঠিন।

বাহাদুর বেপারীআন্তর্জাতিক
চির প্রতিদ্বন্দ্বী দুই দেশ পাকিস্তান এবং ভারত পরমাণু অস্ত্রের মজুদ অব্যাহভাবে বাড়িয়ে চলেছে। এ তথ্য দিয়েছে সুইডেনভিত্তিক ‘স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইন্সটিটিউট’ বা এসআইপিআরআই। সংস্থাটি তাদের বার্ষিক প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরেছে। তবে পরিসংখ্যান বলছে পরমাণু অস্ত্র মজুদের ক্ষেত্রে ভারতের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে পাকিস্তানই। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পাকিস্তানের অস্ত্র ভাণ্ডারে ১০০...