1434100413_th
মামলায় হাজিরা দিতে গিয়ে মুক্তাগাছার পাইকড়া গ্রামের একই পরিবারের ৭ জন সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন।

এ সময় আহত হয়েছেন আরও ৪ জন। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় ময়মনসিংহ-টাঙ্গাইল মহাসড়কের মুক্তাগাছার নিমুরিয়া ডুবারপাড় এলাকায় সিএনজি অটোরিকশা- পিকাপভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে এ ঘটনাটি ঘটেছে। নিহতরা হলেন, উপজেলার পাইকড়া গ্রামের নবীরণ বেওয়া(৫২),তার ৩ ছেলে ইকবাল হোসেন(৪০) আঃ ছালাম(৩২), অটোরিকশার চালক মন্টু মিয়া(২৩), দেবর জয়নাল আবেদীন(৫৫), তোফানিয়া(৬০) ও আবুল কাশেম(৬২)। আহত জমশেদ, মাসুদ, লুৎফর, ও মনোয়ারাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। একই পরিবারের ৭ জন নিহত হওয়ায় পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

থানা পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, একটি মামলায় হাজিরা দিতে পরিবারের ৭ সদস্য তাদের নিজস্ব অটোরিকশায় গাঁদাগাঁদি করে ময়মনসিংহের উদ্দেশে বাড়ি থেকে রওনা হন। ঘটনাস্থলে তাদের অটোরিকশাটির সাথে একটি পিকাপভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে ৪ জন, মুক্তাগাছা হাসপাতালে ১জন ও ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তির পর আরো ২জনের মৃত্যু হয়। দুর্ঘটনায় সিএনজি অটোরিকশাটি দুমড়ে-মুচড়ে সড়কের পাশে খাদে পড়ে যায়। থানা পুলিশ দুমড়ে_মুচড়ে যাওয়া পিকাপভ্যান ও অটোরিকশাটি উদ্ধার করেছে।

মুক্তাগাছা থানার ওসি কামাল হোসেন বলেন, পরিবারের দাবির প্রেক্ষিতে বিনা ময়না তদন্তে পরিবারের কাছে লাশগুলো হস্তান্তর করা হয়েছে।

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে ট্রাক ও প্রাইভেটকারের মুখোমুখি সংঘর্ষে এক সেনা সদস্যসহ তার পরিবারের চারজন এবং চালকের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সোমবার ভোর ৫টার দিকে উপজেলার সদরঘাট এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে শেরপুর হাইওয়ে থানার ওসি নূরন্নবী সরকার জানান। নিহতরা হলেন- সেনা সদস্য আবদুল কাদির (৩৫), তার বাবা আবদুল হামিদ (৭০), মা (৫০) ও কাদিরের মেয়ে শারমিন আক্তার (১৪) এবং প্রাইভেট কারের চালক শাহ আলম (৩২)। ওসি নূরন্নবী জানান, হামিদদের বাড়ি সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার জাফলং মোহাম্মদপুর গ্রামে। আর শাহ আলমের বাড়ি সিলেটের জৈন্তাপুর এলাকায়। তিনি জানান, কাদির মালিতে জাতিসংঘ শান্তি মিশন থেকে গত মাসে দেশে ফেরেন। নরসিংদীতে এক আত্মীয়র বাসা থেকে রাতে গোয়াইনঘাটে ফিরছিলেন তারা। তবে কাদিরের মায়ের নাম তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। তাদের গাড়ি সদরঘাট এলাকায় পৌঁছানোর পর সিলেট থেকে ঢাকাগামী একটি পাথরবোঝাই ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই পাঁচজনের মৃত্যু হয়। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে শেরপুর হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজ শুরু করে। নিহতদের লাশ উদ্ধার করে মহাসড়ক পুলিশ ফাঁড়িতে রাখা হয়। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে দুর্ঘটনাকবলিত বাহনগুলো সরিয়ে নেয় বলে জানান ওসি।

গাইবান্ধা : গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় ট্রাকের নিচে চাপা পড়ে এক দম্পতি নিহত হয়েছে। নিহতরা হলেন- রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার ইমাদপুর ইউনিয়নের কুরারপাড়া গ্রামের মতিয়ার রহমান (৫২) ও তার স্ত্রী আসমা বেগম ওরফে আফরুজা (৩৫)। সুন্দরগঞ্জ থানার ওসি মোজাম্মেল হোসেন জানান, সোমবার বেলা ১১টার দিকে কাশেমবাজারে রংপুর-গাইবান্ধা সড়কে এ ঘটনা ঘটে। ওসি মোজাম্মেল বলেন, ওই দম্পতি নিজ বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে করে গাইবান্ধা আসার পথে একটি ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ট্রাকের নিচে চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই দুজনের মৃত্যু হয়। লাশ দুটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

রাজবাড়ী: রাজবাড়ী সদর উপজেলায় একটি বাসের সঙ্গে যাত্রীবাহী মাহেন্দ্রর মুখোমুখি সংঘর্ষে এক পান ব্যবসায়ী নিহত এবং চালকসহ চারজন আহত হয়েছেন। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে রাজবাড়ী ফায়ার সার্ভিস অফিসের সামনে রাজবাড়ী-ফরিদপুর সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

রাজবাড়ী সদর থানার ওসি শহীদুল ইসলাম জানান, হতাহতরা সবাই মাহেন্দ্রর আরোহী ছিলেন। নিহত উত্তম কুমার দে’র (৫০) বাড়ি রাজবাড়ী পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডে। তিনি পানের ব্যবসা করতেন।

আহতরা হলেন- কল্যাণপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর হোসেন, একই গ্রামের সাকিল আহমেদ (২২), মানিকগঞ্জের বান্দুটিয়া গ্রামের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা কাজি মোশারফ হোসেন (৫০) এবং বালিয়াকান্দির নারুয়া গ্রামের ইসলাম হোসেন (৩৫)। এদের মধ্যে মাহেন্দ্র চালক জাহাঙ্গীরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য জেলা সদর হাসপাতাল থেকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। ইসলাম ও মোশারফকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যজন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। দুর্ঘটনাকবলিত বাসটি ফরিদপুর থেকে রাজবাড়ী আসছিল। অন্যদিকে মাহেন্দ্রটি আরোহীদের নিয়ে রাজবাড়ী থেকে গোয়ালন্দ মোড়ের দিকে যাচ্ছিল।

প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে ওসি শহীদুল বলেন, ঘটনাস্থলে মাহেন্দ্রটি একটি অটোরিকশাকে ‘ওভারটেক’ করে সামনে যেতে চাইলে বিপরীত দিক থেকে আসা বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মাহেন্দ্রটি দুমড়ে মুচড়ে যায় এবং ঘটনাস্থলেই এক আরোহীর মৃত্যু হয়। বাসটি পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। বাস চালক পালিয়ে গেছে বলে জানান ওসি।

বাহাদুর বেপারীস্বদেশের খবর
মামলায় হাজিরা দিতে গিয়ে মুক্তাগাছার পাইকড়া গ্রামের একই পরিবারের ৭ জন সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও ৪ জন। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় ময়মনসিংহ-টাঙ্গাইল মহাসড়কের মুক্তাগাছার নিমুরিয়া ডুবারপাড় এলাকায় সিএনজি অটোরিকশা- পিকাপভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে এ ঘটনাটি ঘটেছে। নিহতরা হলেন, উপজেলার পাইকড়া গ্রামের নবীরণ বেওয়া(৫২),তার ৩ ছেলে...