6
আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।
জাতিসংঘের হিসাব অনুসারে সেনাবাহিনী দ্বারা জাতিগত নিধন শুরু হওয়ার পর মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য আগামী ছয়মাসে বাংলাদেশের প্রয়োজন কমপক্ষে ২০০ মিলিয়ন ইউএস ডলার।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

২৫ আগস্টের পর থেকে মিয়ানমার থেকে আসা ৪ লাখ ২২ হাজার শরণার্থীকে সামাল দিতে বিপুল হিমশিম খাচ্ছে বাংলাদেশ ও মানবাধিকার সংস্থাগুলো।

বিভিন্ন সময় হামলা ও নির্যাতনের স্বীকার হয়ে বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ মিয়ানমার থেকে আসা ৪ লাখ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশ আগে থেকেই আশ্রয় দিয়ে রেখেছিল।

৯ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ ৭৮ মিলিয়ন ডলার সহায়তা চেয়ে একটি আবেদন জানিয়ে রাখলেও এরপর রোহিঙ্গাদের স্রোত আরো বাড়তেই থাকে।

শুক্রবার বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি রবার্ট ডি ওয়াটকিন্স তার ঢাকা অফিস কলয়ে রয়টার্সকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘এখন আমরা কমপক্ষে ২০০ মিলিয়ন ইউএস ডলারের সহায়তা চাচ্ছি।’

তিনি বলেন, ‘এটা এখনো নিশ্চিত নয়, কিন্তু আমাদের কাছে যে তথ্য আছে তার উপর ভিত্তি করেই ছয়মাসের জন্য এ হিসাবের ধারণা করা হয়েছে।’

‘আমারা এটাকে তাৎক্ষণিক প্রয়োজন মেটানোর জন্যই চাচ্ছি। এবং আমরা এটা জানি যে রোহিঙ্গারা কমপক্ষে ছয়মাস বাংলাদেশে থাকছেন।’

এদিকে রোহিঙ্গাদের উপর জাতিগত নিধনের অভিযোগ মিয়ানমার সরকার বারবার অস্বীকার করে আসছে। রয়টার্স।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2017/09/632.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2017/09/632-300x300.jpgশিশির সমরাটআন্তর্জাতিক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক । জাতিসংঘের হিসাব অনুসারে সেনাবাহিনী দ্বারা জাতিগত নিধন শুরু হওয়ার পর মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য আগামী ছয়মাসে বাংলাদেশের প্রয়োজন কমপক্ষে ২০০ মিলিয়ন ইউএস ডলার।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। ২৫ আগস্টের পর থেকে মিয়ানমার থেকে আসা ৪ লাখ ২২ হাজার শরণার্থীকে সামাল দিতে...