777
আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা ওজন কমাতে গিয়ে রাতে আধপেটা থাকেন। কেউবা একেবারেই খান না। এটা ঠিক নয়। বরং পরিমিত খাবার খেয়েও ওজন কমানোর পাশাপাশি সুস্থ থাকা যায়। তবে এমন কিছু খাবার আছে যা রাতে কখনই খাওয়া ঠিক নয়। ঘুমানোর আগে আগে এসব খাবার খেলে মুটিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়ার আশঙ্কা থাকে। তাই ঘুমানোর অন্তত তিন ঘণ্টা আগে খাবার সেরে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা জানিয়েছেন, যদি এমনটি সম্ভব না হয় তবে কিছু কিছু খাবার রাতের তালিকা থেকে একেবারেই বাদ দেওয়া উচিত।

জেনে নিন রাতে স্বাস্থ্যঝুঁকি বাড়ায় যেসব খাবার-

চকলেট
এতে ক্যাফেইন এবং থিওব্রোমিন নামে এমন এক উপাদান রয়েছে, যা শারীরিক অস্বস্তির কারণ হতে পারে। এছাড়া চকলেটে প্রচুর ফ্যাট থাকায় তা শরীরের ভালবকে শিথিল করেতে সাহায্য করে। তাই ঝুঁকির হাত থেকে বাঁচতে এটি রাতে না খাওয়াই ভালো।

মাখন
মাখনে প্রচুর ফ্যাট থাকায় রাতে এটিও না খাওয়াই বেশি ভালো। এতে ওজন বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

বাদাম
রাতে ঘুমানোর আগে আগে সব ধরনের বাদাম খাওয়া থেকে দূরে থাকুন। এতে বিষম খাওয়ার ঝুঁকি থাকে। তবে পেস্তা এবং কাজু বাদামে এ ঝুঁকি অপেক্ষাকৃত কম।

টক
এসিডিটি থেকে বাঁচতে ঘুমানোর আগে টক এড়িয়ে চলার কোন বিকল্প নেই। এ ধরনের খাবারে প্রচুর জৈব এসিড থাকে যা গ্যাসের সমস্যা আরও বাড়িয়ে দেয়।

অ্যালকোহল
ঘুমানোর আগে আগে অ্যালকোহল সেবন না করাই ভালো। এর কারণে বমিভাবসহ আরও নানা স্বাস্থ্যগত সমস্যা দেখা দিতে পারে।

কার্বনেটেড পানীয়
রাতে সব ধরনের কার্বনেট পানীয় এড়িয়ে চলাই ভালো। এগুলো পাকস্থলীর চাপকে বাড়াতে সাহায্য করে। এছাড়া এসিডিটির পাশাপাশি খাদ্যনালী এবং পাকস্থলীর মধ্যকার ভালবকেও শিথিল করে এই পানীয়।

কফি
রাতে কখনই কফি খাওয়া ঠিক নয়। ঘুমানোর আগে কফি খেলে অনিদ্রা এবং এসিডিটির সমস্যা বেড়ে যায়। তাই এ খাবারটিও এড়িয়ে চলুন।

কাজেই সুস্থ থকতে রাতে ঘুমানোর আগে উপরোক্ত খাবারগুলো খাওয়া একেবারেই বাদ দিন। এতে ওজন কমানোর পাশাপাশি আপনার স্বাস্থ্যঝুঁকিও কমবে।

হীরা পান্নালাইফ স্টাইল
আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা ওজন কমাতে গিয়ে রাতে আধপেটা থাকেন। কেউবা একেবারেই খান না। এটা ঠিক নয়। বরং পরিমিত খাবার খেয়েও ওজন কমানোর পাশাপাশি সুস্থ থাকা যায়। তবে এমন কিছু খাবার আছে যা রাতে কখনই খাওয়া ঠিক নয়। ঘুমানোর আগে আগে এসব খাবার খেলে মুটিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি স্বাস্থ্যঝুঁকিতে...