সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৪:৫০ পূর্বাহ্ন
Uncategorized

বাড্ডায় তিন খুন: আরো ২ জন গ্রেফতার

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট সময় : সোমবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৫
  • ১১ দেখা হয়েছে

atok_99713
রাজধানীর বাড্ডার আদর্শ নগরে তিন খুনের ঘটনায় দুইজনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- বাড্ডা থানা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিলন ও যুবলীগ কর্মী নূর মোহাম্মদ। সোমবার সকালে তাদের ঐ মামলায় আনুষ্ঠানিকভারে গ্রেফতার দেখানো হয়।

এর আগে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শনিবার রাতে মিলন ও রবিবার দুপুরে নূর মোহাম্মদকে আটক করা হয়।

এছাড়া গোয়েন্দা পুলিশ আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ঐ এলাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী সদ্য প্রয়াত বাউল সুমনের স্ত্রী আফরোজা আক্তার স্মৃতি ও সন্দেহভাজন কিলার ছাত্রলীগ নেতা জুয়েলের বাবাকে শর্ত সাপেক্ষে ছেড়ে দিয়েছে। এদিকে তিন খুনের ঘটনায় শনিবার রাতে বাড্ডা থানায় মামলা করেছেন নিহত স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা মাহবুবুর রহমান গামার বাবা মতিউর রহমান। মামলায় ১০ থেকে ১২ জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামী করা হয়েছে।

অন্যদিকে, একই ঘটনায় নিহত আওয়ামী লীগ নেতা শামসুদ্দিন মোল্লার পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করতে গেলেও তা নেয়া হয়নি বলে পরিবারটির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। নিহত শামসুদ্দিন মোল্লার ভগ্নিপতি পলাশ অভিযোগ করেছেন, হত্যার ঘটনায় সাত জনের জড়িত থাকার বিষয়টি উল্লেখ করে রবিবার রাতে মামলা করতে গেলে তাদেরকে প্রায় ৬ ঘণ্টা বসিয়ে রাখা হয়।

তবে বাড্ডা থানার ওসি আব্দুল জলিল ক্রাইম রিপোার্টার ২৪.কমকে বলেন, একই ঘটনায় দুইটি মামলা রেকর্ড করার কোনো বিধান নেই। তবে তাদের লিখিত অভিযোগটি মামলার সাথে সংযুক্ত করা হয়েছে। পুলিশ ঐ অভিযোগটিও তদন্ত করবে। তিনি বলেন, ঐ অভিযোগে যাদের নাম উল্লেখ করা হয়েছে তাদের মধ্যে কয়েকজন পুলিশের সন্দেহ এবং নজরদারির মধ্যে রয়েছে।

শামসুদ্দিন মোল্লার পরিবারের দেয়া অভিযোগে বাড্ডা থানা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক জুয়েল এবং সোহেল ছাড়াও যুবলীগ নেতা সোহেল রানা ও বিজয়সহ সাত জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এরা বাউল সুমনের সহযোগী এবং এলাকায় ঝুট ব্যবসার নিয়ন্ত্রণসহ নানা অপকর্ম করত।

চাঞ্চল্যকর তিন খুনের ঘটনাটি বাড্ডা থানা পুলিশের পাশাপশি র্যাব ও ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ ছায়া তদন্ত করছে। স্পর্শকাতর হওয়ায় তিন খুনের মামলাটি যে কোনো মুহুর্তে তদন্তের জন্য মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কাছে স্থানান্তর করা হবে বলে পুলিশের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার রাতে বাড্ডার আদর্শনগর পানির পাম্প এলাকায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত হন ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক শামসুদ্দিন মোল্লা, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মাহবুবুর রহমান গামা ও উত্তর বাড্ডার একটি হাসপাতালের ম্যানেজার ফিরোজ আহমেদ ওরফে মানিক।

শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরো খবর

সম্পাদক ও প্রকাশক

মুহাম্মদ মিজানুর রহমান চৌধুরী

© All rights reserved by Crimereporter24.com
themesba-lates1749691102