6
নিজস্ব প্রতিবেদক ।
হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় পুলিশের চাকরি দেয়ার নাম করে ১১ লাখ টাকা দাবির অভিযোগে মঈন উদ্দিন লস্কর ওরফে আশ্রাফুল (৩০) নামে এক পুলিশ পরিচয়দানকারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মাধবপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সাজেদুল ইসলাম পলাশ ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, উপজেলার বহরা ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত মঈন উদ্দিন মাধবপুর উপজেলার ছাতিয়াইন ইউনিয়নের শিমুলগড় গ্রামের মুকিম উদ্দিন লস্করের ছেলে।

সোমবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে হবিগঞ্জ জেলা পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (মাধবপুর সার্কেল) এসএম রাজু আহমেদ ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, মাধবপুর উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের নিম্বর আলীর ছেলে দেলোয়ার হোসেন (১৯) চলমান পুলিশ কনস্টেবল পদের পরীক্ষার্থী। সোমবার সকালে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের প্রতিনিধি হিসেবে মঈন উদ্দিন পুলিশের হাবিলদার পরিচয় দিয়ে দেলোয়ারকে চাকরি দেয়ার নাম করে তার বাড়িতে গিয়ে ১৫ লাখ টাকা দাবি করেন। পরে ১১ লাখ টাকায় নির্ধারণ করা হয়। দেলোয়ারের পুলিশের চাকরির আগে খরচ বাবদ মঈন উদ্দিন আরো ৩ হাজার টাকা নেন। এদিকে দেলোয়ারের বাবা নিম্বর আলীর বিষয়টি সন্দেহ হলে মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোক্তাদির হোসেনকে খবর দেন। খবর পেয়ে মনতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই কামরুল হাসান অভিযুক্ত মঈন উদ্দিনকে আটক করেন। পরে প্রতারক মঈন উদ্দিন ঘটনার দায় স্বীকার করেছেন।

সিনিয়র সহাকরী পুলিশ সুপার ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে আরো জানান, পুলিশের নিয়োগ নিয়ে একদল প্রতারক চক্রের সৃষ্টি হয়েছে। আমরা এ রকম প্রতারক হতে সতর্ক থাকার জন্য সকলকে অনুরোধ করেছি। এ ব্যাপারে মাধবপুর থানায় মামলা হয়েছে।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2017/04/626.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2017/04/626-300x300.jpgনৃপেন পোদ্দারএই মুহূর্তের খবর
নিজস্ব প্রতিবেদক । হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় পুলিশের চাকরি দেয়ার নাম করে ১১ লাখ টাকা দাবির অভিযোগে মঈন উদ্দিন লস্কর ওরফে আশ্রাফুল (৩০) নামে এক পুলিশ পরিচয়দানকারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মাধবপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সাজেদুল ইসলাম পলাশ ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, উপজেলার বহরা ইউনিয়নের ভবানীপুর...