3
ডা. মোড়ল নজরুল ইসলাম ।
শীত প্রায় বিদায়ের পথে। এখনই আবহাওয়া পরিবর্তনজনিত কারণে নগরীর বিভিন্ন স্থানে ভাইরাল ফেবার বা ভাইরাসজনিত জ্বর হচ্ছে। অনেকে আবার আক্রান্ত হচ্ছে ফ্লুতে। ফ্লু সাধারণত: বেশি হয় শিশুদের। আর শিশুদের ফ্লু থেকে নিউমোনিয়া বা শ্বাস যন্ত্রের সংক্রমণ হতে পারে। সাধারণত: জ্বর, সর্দি, কাশি, বমি, অথবা বমি বমি ভাব, শরীরে তীব্র ব্যথা, খাবারে অরুচিসহ নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। সঙ্গে থাকতে পারে পেটে ব্যথা ইত্যাদি।

প্রাথমিক অবস্থায় ভাইরাল ফেবার হলে ৪ থেকে ৭ দিনের মধ্যে নিরাময় ঘটে। তবে রোগীর উপসর্গ অনুযায়ী চিকিৎসা দেয়ার প্রয়োজন হয়। যেমন-ফ্লু হলে বা শরীরে তাপমাত্রা ১০১ ডিগ্রি ফারেনহাইটের বেশি হলে প্যারাসিটামল খাওয়াতে হবে। জ্বর যদি ১০৩, ১০৪ ডিগ্রি পর্যন্ত উঠে তাহলে সাপোজিটরি দেয়া যেতে পারে। সর্দি-কাশি হলে এন্টিহিস্টামিন জাতীয় ওষুধ সেবন করা যেতে পারে। এছাড়া ফুসফুসের সংক্রমণ রোধে এন্টিবায়োটিক-এর প্রয়োজন হতে পারে। তাই জ্বর, সর্দি-কাশি ৩/৪ দিনের বেশি দীর্ঘায়িত করলে অবশ্যই কোনো চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া উচিত।

লেখক : চুলপড়া, এলার্জি, চর্ম ও যৌন রোগ বিশেষজ্ঞ

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2017/02/32.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2017/02/32.jpgজান্নাতুল ফেরদৌস মেহরিনস্বাস্থ্য কথা
ডা. মোড়ল নজরুল ইসলাম । শীত প্রায় বিদায়ের পথে। এখনই আবহাওয়া পরিবর্তনজনিত কারণে নগরীর বিভিন্ন স্থানে ভাইরাল ফেবার বা ভাইরাসজনিত জ্বর হচ্ছে। অনেকে আবার আক্রান্ত হচ্ছে ফ্লুতে। ফ্লু সাধারণত: বেশি হয় শিশুদের। আর শিশুদের ফ্লু থেকে নিউমোনিয়া বা শ্বাস যন্ত্রের সংক্রমণ হতে পারে। সাধারণত: জ্বর, সর্দি, কাশি, বমি, অথবা...