"1000172_6267155চলতি

গতকাল মঙ্গলবার ধর্মমন্ত্রণায়লের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সৌদি আরবের নির্ধারিত কোটা ১ লাখ ১ হাজার ৭শ ৫৮ জনের অতিরিক্ত ২৫ হাজার হজযাত্রীর কোটার জন্য যে সুপারিশ করা হয়েছিল সৌদি সরকার তা নাকচ করে দিয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, একবার নাকচ হওয়ার পর সৌদি সরকার কর্তৃক কোটা বৃদ্ধির আশা সুদূর পরাহত। অতএব নির্ধারিত কোটার মধ্যে যে সব এজেন্ট যে সংখ্যক হজযাত্রী প্রেরণের জন্য যোগ্য বিবেচিত হয়েছেন, তাদেরকে আগামি ১৮ জুনের মধ্যে সৌদি আরবে ব্যাংক হিসাব খোলা, টাকা জমাদান, বাড়ি ভাড়া চুক্তি সম্পাদন ও সৌদি মোয়াল্লেমদের সঙ্গে চুক্তিসহ যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ জানানো হলো।

নির্ধারিত তারিখের মধ্যে উলি্লখিত কাজগুলো সম্পন্ন করতে ব্যর্থ হলে, হজ এজেন্টরা তাদের হজযাত্রী প্রেরণে ব্যর্থ হবেন। এ ধরনের অবহেলার জন্য সংশ্লিষ্ট হজ এজেন্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ও শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তবে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয় কোটা ভিত্তিতে চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

নির্ধারিত কোটার মধ্যে যে সকল এজেন্সি যে পরিমাণ হজযাত্রী পাঠানোর জন্য যোগ্য প্রমাণিত হয়েছে তাদেরকে আগামী ১৮ জুনের মধ্যে সৌদি আরবের ব্যাংক হিসাব খোলা, টাকা জমা ও বাড়িভাড়া চুক্তিসহ যাবতীয় কাজ সম্পাদন করার অনুরোধ করা হয়েছে।

নির্ধারিত তারিখের মধ্যে এসব কাজ সম্পন্ন করতে ব্যর্থ হলে এজেন্সিগুলো তাদের হজযাত্রী পাঠাতে ব্যর্থ হবে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়। এতে আরো বলা হয়, হজ এজেন্সিগুলোর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শুভ সমরাটঅন্যান্যজাতীয়
গতকাল মঙ্গলবার ধর্মমন্ত্রণায়লের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সৌদি আরবের নির্ধারিত কোটা ১ লাখ ১ হাজার ৭শ ৫৮ জনের অতিরিক্ত ২৫ হাজার হজযাত্রীর কোটার জন্য যে সুপারিশ করা হয়েছিল সৌদি সরকার তা নাকচ করে দিয়েছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, একবার নাকচ হওয়ার পর সৌদি...