শিরোনাম

শুষ্ক ত্বকের যত্নে ভেষজ তেল

1438066625
শুষ্ক ত্বকের সুরক্ষায় বেশিরভাগ সময়ই আমরা বাজারের নানা ধরনের কসমেটিক পণ্য ব্যবহার করে থাকি। এগুলো সাময়িকভাবে ত্বকে আর্দ্রতা নিয়ে আসলেও পরবর্তীতে ত্বকের নানা ক্ষতি করে। এসব পণ্য ব্যবহারের ফলে ত্বকে ব্রণ, মেছতা ও ত্বক লাল হওয়াসহ আরও নানা ধরনের উপসর্গ দেখা দেয়। তখন ত্বকের বারোটা বেজে যায়। কাজেই এ সময় ত্বকের সুরক্ষায় এমন কিছু প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করুন যা ত্বকের সব সমস্যার সমাধানে অনেক বেশি কার্যকরী। এই উপাদানগুলো শুধু ত্বকের আর্দ্রতা ফিরিয়ে আনতেই ভূমিকা রাখবে না, একইসঙ্গে ত্বকের স্বাস্থ্যও ভালো রাখবে।

জেনে নিন শুষ্ক ত্বকের যত্নে ব্যবহার করবেন যেসব তেল-

বাদাম তেল
এই তেলে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, বি ও এ রয়েছে যা সকল ধরনের ত্বকের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ভালো কাজ করে। বিশেষ করে শুষ্ক ত্বকে বাদাম তেল প্রাণ ফিরিয়ে আনে। একইসঙ্গে ত্বককে করে তোলে নরম এবং আরও বেশি কোমল। এছাড়া ত্বকের জ্বালাপোড়া, চুলকানিসহ নানা সমস্যা সমাধানেও ভূমিকা রাখে। বিভিন্ন কসমেটিকস পণ্য ব্যবহারের পাশাপাশি ত্বকের নানা চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয় এই বাদাম তেল।

অলিভ অয়েল
এই তেলের উপকারী গুণের কথা কম-বেশি আমাদের সবার জানা। এতে ভিটামিন ই এবং আরও অনেক অত্যাবশ্যকীয় পুষ্টি উপাদান রয়েছে যা শুষ্ক ত্বকে আর্দ্রতা ফিরিয়ে আনার পাশাপাশি ত্বকের যে কোন সমস্যা সমাধানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। এছাড়া অলিভ অয়েলে এমন কিছু মাইক্রোবিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো রাখতেও কাজ করে।

শুষ্ক ত্বকের যত্নে ভেষজ তেল আঙুর বীজ তেল
অ্যাস্ট্রিজেন বৈশিষ্ট্য থাকায় এই তেলটি ত্বককে টান টান করে রাখতে সাহায্য করে। এতে উচ্চ মাত্রার লিনোলিক অ্যাসিড এবং ফ্যাটি অ্যাসিড নামে এমন কিছু উপাদান রয়েছে যা ত্বকের জন্য অনেক বেশি প্রয়োজনীয়। লিনোলিক অ্যাসিড ত্বকের পুনর্জন্মে সাহায্য করে। একইসঙ্গে ত্বকে আর্দ্রতা ধরে রাখতেও ভূমিকা রাখে আঙুর বীজ তেল।

সূর্যমুখীর তেল
সূর্যমুখীর তেল ভিটামিন এ, সি, ডি এবং ই- এর সমৃদ্ধ উৎস। এই উপাদানগুলোর কারণে তেলটি ত্বক এবং চুলের জন্য অনেক ভালো। এটি শুষ্ক ত্বকে আর্দ্রতা নিয়ে আসে। একইসঙ্গে তেলটি ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে ত্বককে নানা সমস্যার হাত থেকে রক্ষা করে।

নারকেল তেল
ত্বকের যত্নে নারকেল তেলও অনেক ভালো কাজ করে। এটা ত্বকের শুষ্কতা দূর করে আর্দ্র ভাব নিয়ে আসে। ত্বকের নানা সমস্যা দূর করার পাশাপাশি তারুণ্য ধরে রাখতেও ভূমিকা রাখে নারকেল তেল।

নিম তেল
এই তেল প্রাকৃতিকভাবেই ত্বককে সুরক্ষা দেয় এবং ত্বকে এক ধরনের আর্দ্রতা নিয়ে আসে। এটি বিভিন্ন ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ থেকে রক্ষা করে ত্বকের স্বাস্থ্যকে ভালো রাখে। এ তেল নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের নানা সমস্যা দূর হয়। কাজেই ত্বকের সুরক্ষায় নিয়মিত নিম তেল ব্যবহারের চেষ্টা করুন।