শিরোনাম
বিএনপি নেতাদের বক্তব্যে মনে হয় বেগম জিয়া কারাগারে থাকলেই ভালো হতো : ড. হাছান মাহমুদপায়েলকে শয্যাসঙ্গিনী হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন অনুরাগবিএনপির আন্দোলনের তর্জন-গর্জনই শুধু শোনা যায়, বর্ষণ দেখা যায় না : ওবায়দুল কাদেরশুটিং শুরু হচ্ছে নিরব-অপু জুটির প্রথম ছবিরকরোনামুক্ত হলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমশীতে করোনার প্রকোপ বাড়ার আশঙ্কা, প্রস্তুতি নেয়ার আহ্বান শেখ হাসিনারস্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গাড়িচালকের বিলাসবহুল বাড়ি, ফ্ল্যাট, অঢেল টাকাসাহেদের মামলার রায় ২৮ সেপ্টেম্বরকুষ্টিয়ায় পুলিশের হাতে ধৃত সাবেক ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে, ২ মামলামনপুরায় জোয়ারে নিম্নাঞ্চলসহ ফসলের ক্ষেত প্লাবিত, পানিবন্দি হাজারো মানুষ

সালাউদ্দিন কাদেরের আপিলের রায় আগামীকাল

1438061383_th
মানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদণ্ডাদেশ পাওয়া বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর আপিলের চূড়ান্ত রায় আগামীকাল বুধবার ঘোষণা করা হবে। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে আপিল বিভাগের চার সদস্যের বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করবেন।

বেঞ্চের অন্য সদস্যরা হলেন বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

গত ৭ জুলাই আপিলের শুনানি শেষে ২৯ জুলাই রায়ের দিন নির্ধারণ করা হয়। এদিন সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর পক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন ও অ্যাডভোকেট এস এম শাহজাহান এবং রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

এ বিষয়ে আসামিপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, ১৯৭১ সালের ১৩ এপ্রিল থেকে বিভিন্ন সময়ের অভিযোগ রাষ্ট্রপক্ষ উপস্থাপন করেছে। অথচ ১৯৭১ সালের ২৯ মার্চ সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী পাকিস্তানের পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখার জন্য চলে যান। পাকিস্তানে চলে যাওয়ার পাকিস্তান এয়ারওয়েজের টিকেটও রয়েছে এবং সেখানে পড়ালেখা-সংক্রান্ত সনদও রয়েছে। ১৯৭১ সালে সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী দেশে ছিলেন না। এসব কিছু আমরা আদালতে উপস্থাপন করেছি।

অন্যদিকে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো আপিল বিভাগেও আমরা যথাযথভাবে উপস্থাপন করেছি। আশা করি, তার মৃত্যুদণ্ডাদেশ বহাল থাকবে। আদালতে তার সর্বোচ্চ সাজা বহাল থাকার বিষয়ে আমরা যুক্তি উপস্থাপন করেছি। একাত্তরে তিনি যে হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন, তার দায় এড়ানোর কোনো সুযোগ নেই।