শিরোনাম
শহর ও গ্রামের ব্যবধান কমাতে সরকার কাজ করছে : ইমরান আহমসরকার দেশকে আরো মর্যাদাপূর্ণ অবস্থানে নিতে কাজ করছে : শেখ হাসিনানারী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের (বীরাঙ্গনা) গেজেটভুক্তির লক্ষ্যে আবেদন আহ্বানকুমিল্লায় আড়াই বছরের শিশুর গলায় ছুরি ঠেকিয়ে মাকে ধর্ষণকুমিল্লা জেলা আওয়ামী লীগ নেতা রোশন আলীর বিরুদ্ধে মনোনয়ন বাণিজ্যের অভিযোগযারা দুর্নীতি করে ঐশ্বর্য গড়েন, তাদের ঘৃণা করা উচিত : মো: তাজুল ইসলামমুক্তিযোদ্ধাদের নামের পূর্বে ‘বীর’ লেখার বিধান করে গেজেট প্রকাশনারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের মূলহোতা এবার হত্যা মামলায় রিমান্ডেএখনো সুঅভিনেত্রী সুইটিমেসি-দেম্বেলের গোলে জুভেন্টাসকে হারালো বার্সা

শিশুর প্রতি সহিংসতা নির্মূলে অভিভাবকদের আইনের আওতায় আনতে হবে’

1437904573
মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বলেছেন, শিশুর প্রতি সকল প্রকার সহিংসতা বন্ধ ও নির্যাতন রোধে শিশু আইন হালনাগাদ করে অভিভাবকদের আইনের আওতায় আনতে হবে। রবিবার বাংলাদেশ শিশু একাডেমির সেমিনার কক্ষে আয়োজিত শিশু নির্যাতন বন্ধে দিনব্যাপী এক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এই কথা বলেন।

মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, গত কয়েকদিনের শিশু নির্যাতনের ঘটনা আমাদের মনে করিয়ে দিয়েছে যে, শিশুদের আনন্দে বেড়ে ওঠার পরিবেশ আমরা তৈরি করতে পারিনি। এজন্য পরিবার ও সমাজের প্রত্যেকে কোন না কোনভাবে দায়ী। যারা শিশু নির্যাতন করে তারা তাদের পারিবারিক পরিমন্ডলে কোন না কোনভাবে নির্যাতন ও হয়রানির ঘটনা দেখে বড় হয়েছে। তাই বাবা, মা এবং অভিভাবকরা যাতে শিশু নির্যাতন না করতে পারে এজন্য তাদের আইনের আওতায় আনতে হবে।

মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, দরিদ্র ও অপরিকল্পিত পরিবারে বাবা-মা অনেক শিশুর জন্ম দিয়ে নিজেদের ভরণ- পোষণের জন্য শিশু সন্তানদের ঝুঁকিপূর্ণ পেশায় যেতে বাধ্য করেন। বিক্রি করে দেন। এর ফলে শিশুরা নানারকম নির্যাতনের শিকার হয়। কিন্তু এজন্য অভিভাবকরা কোন শাস্তি পান না। তাই অভিভাবকরা যাতে শিশুদের সহিংসতার দিকে ঠেলে দিতে না পারেন সেজন্য আইনে তাদের জন্যও শাস্তির বিধান করতে হবে এবং এ ব্যাপারে তাদের সচেতন করে তুলতে হবে।

‘শিশুর প্রতি সহিংসতা নির্মূলে দক্ষিণ এশীয় উদ্যোগ (সাইভ্যাক) এবং বাংলাদেশের কার্যক্রমসমূহ’ শীর্ষক কর্মশালার আয়োজন করা হয়।