isমার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ’র সাবেক পরিচালক ডেভিড পেট্রাউস বলেছেন, সামরিক ও রাজনৈতিক এ দুই যৌথ উদ্যোগই কেবলমাত্র ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গিদের পরাভূত করতে পারে। বিবিসিকে দেয়া এক বিশেষ সাক্ষাত্কারে তিনি বলেন, চরমপন্থিদের শিল্পায়িত শক্তি শুধুমাত্র অস্ত্রের জোরে ধ্বংস করা সম্ভব নয়, এজন্য প্রয়োজন রাজনৈতিক শক্তির।

ইরাক যুদ্ধের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি বলেন, অধিকসংখ্যক মার্কিন সৈন্য উপস্থিতির বিষয়টিই মুখ্য নয়, বরং সেখানে আল কায়েদার বিরুদ্ধে সুন্নি উপজাতিদের সমর্থন নিশ্চিত করা হয়। বর্তমানে মার্কিন সমর্থনপুষ্ট ইরাকি সেনাবাহিনী আইএসের দখলকৃত এলাকা পুনরুদ্ধারের লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে। জেনারেল পেট্রাউস আইএস জঙ্গিদের ‘ভয়ঙ্কর শক্র’ হিসেবে উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, এটি সত্য যে তারা একদিকে যেমন একটি নিয়মিত বাহিনী অন্যদিকে বিদ্রোহী ও সন্ত্রাসী। তবে ইরাকি আল কায়েদার সঙ্গে তুলনা করা হলে তিনি বলেন, তাদের মূল ইরাকের আরো ভেতরে গ্রোথিত ছিল এবং সংখ্যাও তারা আইএসের চেয়ে বেশি ছিল। আইএসের গুরুত্বপূর্ণ আনবার প্রদেশের রাজধানী রামাদি দখল প্রসঙ্গে সাবেক এই মার্কিন জেনারেল বলেন, আমি মনে করি না যে রামাদি পুনর্দখলে আর এক সপ্তাহের বেশি সময় লাগবে।

উল্লেখ্য, ইরাক ও আফগানিস্তানে আন্তর্জাতিক বাহিনীর সফল নেতৃত্বদানের পর জেনারেল পেট্রাউস মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএর প্রধান নির্বাচিত হন। কিন্তু ২০১২ সালে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের এক কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়ে ওই পদ ছেড়ে যেতে বাধ্য হন।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/06/is.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/06/is-300x300.jpgশুভ সমরাটআন্তর্জাতিক
মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ’র সাবেক পরিচালক ডেভিড পেট্রাউস বলেছেন, সামরিক ও রাজনৈতিক এ দুই যৌথ উদ্যোগই কেবলমাত্র ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গিদের পরাভূত করতে পারে। বিবিসিকে দেয়া এক বিশেষ সাক্ষাত্কারে তিনি বলেন, চরমপন্থিদের শিল্পায়িত শক্তি শুধুমাত্র অস্ত্রের জোরে ধ্বংস করা সম্ভব নয়, এজন্য প্রয়োজন রাজনৈতিক শক্তির। ইরাক যুদ্ধের প্রসঙ্গ...