1436724705

কপোতাক্ষ নদ খনন প্রকল্প বাস্তবায়নে অনেকটা চুপিসারে টিআরএম (টাইডাল রিভার ম্যানেজমেন্ট/জোয়ারাধার) চালু করা হয়েছে। শনিবার বিকালে সাতক্ষীরার তালা উপজেলার বালিয়া গ্রামে কপোতাক্ষ নদের সাথে টিআরএম বাস্তবায়নের জন্য নির্ধারিত পাখিমারা বিলের সাথে সংযোগ খালের বাঁধ কেটে দেয়ার মাধ্যমে এ প্রকল্প শুরু হয়। কিন্তু টিআরএমের জন্য নকশা বাস্তবায়ন না করা ও পেরিফেরিয়াল বাঁধ নির্মাণে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। ফলে বিল সংলগ্ন ৭/৮টি গ্রাম নদীর পানিতে ভেসে যাবার আশংকা করছে এলাকাবাসী। শত শত মানুষ আকস্মিকভাবে বাঁধ কাটায় বাধা দিতে এলে পানি উন্নয়ন বোর্ড, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান, র্যাব, পুলিশ ও বিজিবির পাহারার মাধ্যমে খালের বাধ কাটা শুরু হয়। এলাকা প্লাবিত হবার আশংকায় মানুষের মাঝে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে।

সরেজমিনে পরিদর্শনকালে গ্রামবাসী অভিযোগ করেন, পানি উন্নয়ন বোর্ড যশোরের অধীনে ২৬১ কোটি ৫৪ লাখ ৮৩ হাজার টাকা ব্যয়ে কপোতাক্ষ নদ খনন প্রকল্প সীমাহীন দুর্নীতি আর অনিয়মের মাধ্যমে বাস্তবায়িত হচ্ছে। টিআরএম চালু করার আগে প্রকল্প অনুযায়ী বিলের চারপাশে পেরিফেরিয়াল বাঁধ নির্মাণ, বিলের জমি মালিকদের ক্ষতিপূরণ প্রদান, বিল সংলগ্ন গ্রামগুলোর বর্ষার পানি নিষ্কাশনের জন্য পেরিফেরিয়াল বাঁধে কালভার্ট করে তার মুখে পাটা দেয়ার কথা উল্লেখ রয়েছে। কিন্তু কর্তৃপক্ষ প্রকল্পের নকশার কোনটাই যথাযথভাবে না করে লুটপাটে লিপ্ত হয়েছে এমন অভিযোগ করেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক গ্রামবাসী।

এ বিষয়ে জালালপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ রবিউল ইসলাম মুক্তি ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, পাখিমারা বিলে কবে নাগাদ টিআরএম চালু করা হবে তা কর্তৃপক্ষ এলাকার কাউকে কখনও জানায়নি। যে কারণে পাখিমারা বিলে দীর্ঘদিন ধরে মানুষ কোটি কোটি টাকা বিনিয়োগ করে মাছ চাষ করে আসছিল। কিন্তু কর্তৃপক্ষ’র কোন ঘোষণা ছাড়াই প্রশাসনের পাহারায় টিআরএম চালু করায় শত শত মত্স্য ঘের ব্যবসায়ী সর্বস্বান্ত হয়ে গেল। এ ব্যাপারে শনিবার বিকালে শ্রীমন্তকাটি নতুন বাজারে এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই সভা থেকে জনস্বার্থ বিরোধী টিআরএম বাস্তবায়ন বন্ধ করে প্রকল্পের নকশা অনুযায়ী টিআরএম প্রকল্প বাস্তবায়নের দাবি জানানো হয়। এ ব্যাপারে যশোর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী অখিল কুমার বিশ্বাস ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, অনেক বাধা বিপত্তি উপেক্ষা করে শনিবার থেকে টিআরএম কার্যক্রম শুরু হলো। স্থানীয় প্রভাবশালীরা বাধা সৃষ্টির চেষ্টা করেছে। কিন্তু সবকিছু উপেক্ষা করা হয়েছে। প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে লাখ লাখ মানুষ উপকৃত হবে বলে তিনি দাবি করেন। সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়া) আসনের সংসদ সদস্য মুস্তফা লুত্ফুল্ল­াহ ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন, মানুষের দাবির প্রেক্ষিতে চালু হয়েছে টিআরএম। টিআরএম’র বাঁধ দ্রুত সংস্কার করার জন্যে সংশ্লি­ষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে এবং যে সকল জমির মালিক ক্ষতিপূরণ পায়নি তাদের দ্রুত ক্ষতিপূরণ প্রদানের জন্য জেলা প্রশাসনকে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ করতে বলেছি।

অর্ণব ভট্টপ্রথম পাতা
কপোতাক্ষ নদ খনন প্রকল্প বাস্তবায়নে অনেকটা চুপিসারে টিআরএম (টাইডাল রিভার ম্যানেজমেন্ট/জোয়ারাধার) চালু করা হয়েছে। শনিবার বিকালে সাতক্ষীরার তালা উপজেলার বালিয়া গ্রামে কপোতাক্ষ নদের সাথে টিআরএম বাস্তবায়নের জন্য নির্ধারিত পাখিমারা বিলের সাথে সংযোগ খালের বাঁধ কেটে দেয়ার মাধ্যমে এ প্রকল্প শুরু হয়। কিন্তু টিআরএমের জন্য...