313-150x83
রাজশাহী রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্সে (আরআরএফ) নিজেদের মধ্যে মারামারিতে পুলিশের ১৮ সদস্য আহত হয়েছেন।

বুধবার ইফতারের পর মারামারির এ ঘটনা ঘটে। আহত ১৮ জনের মধ্যে ১৩ জনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে।

রামেক হাসপাতাল পুলিশ বক্সের ইনচার্জ সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মোশারফ হোসেন ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, আহত অবস্থায় রিজার্ভ ফোর্সের ১৮ জনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে রাত সাড়ে ৮টার দিকে নিয়ে আসা হয়। পরে চিকিৎসক ১৩ জনকে হাসপাতালের ১৪ ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করেন। বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

আরআরএফ সূত্র জানায়, আগের মারামারির ঘটনায় বুধবার বিকেলে ১১৩ জন কনস্টেবলকে শাস্তি দেওয়া হয়। এ নিয়ে ইফতারের সময় পুলিশের সদস্যরা নিজেদের মধ্যে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে মারামারির ঘটনা ঘটে।

নগরীর রাজপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মেহেদী হাসান ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, আরআরএফে প্রশিক্ষণরত কনস্টেবলদের মধ্যে ১৩ জনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে ঘটনা সম্পর্কে তিনি কিছু জানাতে অপরাগতা প্রকাশ করেন।

আরআরএফের কমান্ড্যান্ট পুলিশ সুপার বিএম হারুণ-অর-রশিদ ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, তিনি ঢাকায় আছেন। কী কারণে এমন ঘটনা ঘটেছে তা ফিরে তদন্ত করে দেখবেন।

এদিকে রাতে রামেক হাসপাতালে সাংবাদিকরা তথ্য নিতে গেলে ও ছবি তুলতে চাইলে পুলিশের পক্ষ থেকে বাধা দেওয়া হয়।

ওয়াজ কুরুনীঅন্যান্য
রাজশাহী রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্সে (আরআরএফ) নিজেদের মধ্যে মারামারিতে পুলিশের ১৮ সদস্য আহত হয়েছেন। বুধবার ইফতারের পর মারামারির এ ঘটনা ঘটে। আহত ১৮ জনের মধ্যে ১৩ জনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। রামেক হাসপাতাল পুলিশ বক্সের ইনচার্জ সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মোশারফ হোসেন ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, আহত...