বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ০৩:৪৬ পূর্বাহ্ন
Uncategorized

ইন্দোনেশিয়ার বিমান দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১১৬

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট সময় : বুধবার, ১ জুলাই, ২০১৫
  • ১৫ দেখা হয়েছে

434fa707a3e0b352ba445806009251ed-1t
ইন্দোনেশিয়ায় বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ১১৬ দাঁড়িয়েছে। তবে বিমানটি যে ভবনের ওপর বিধ্বস্ত হয়েছে, সে ভবনের কেউ হতাহত হয়েছেন কি না, তা উদ্ধারকারীরা এখনো নিশ্চিত হতে পারেননি। এ ঘটনা ইন্দোনেশিয়ার বিমান পরিবহন ব্যবস্থার দুর্বলতাকে আবারও তুলে ধরেছে বলে বার্তা সংস্থার এএফপির খবরে বলা হয়েছে। মাত্র ছয় মাস আগে দেশটির এয়ার এশিয়া এয়ারলাইনসের একটি বিমান সাগরে বিধ্বস্ত হয়েছিল।

আজ মঙ্গলবার রানওয়ে থেকে আকাশে ওড়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই বিমানবাহিনীর বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। বিমানটি দেশটির মেদান শহরের জনবহুল আবাসিক এলাকায় বিধ্বস্ত হয়। বিমানের আঘাতে বেশ কিছু ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং বেশ কিছু যানবাহনেও আগুন জ্বলতে দেখা যায়। দেশটির বিমানবাহিনীর একটি সূত্র জানায়, বিমানটির পাইলটও ওড়ার কিছুক্ষণের মধ্যে মাটিতে অবতরণ করতে চেয়েছিলেন।

ইন্দোনেশিয়ার বিমানবাহিনীর প্রধান এএফপিকে বলেন, বিমানটির ১১৩ জন যাত্রীর কেউ বেঁচে আছে বলে তিনি মনে করেন না। আর বাকি তিনজন যাত্রী বিমানটির আঘাতে মারা গেছেন। উদ্ধারকারীরা ইতিমধ্যে ৬৬ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করেছেন। সামরিক বাহিনীর ওই বিমানে সেনা সদস্য ও তাঁদের পরিবারের সদস্যরা ছিলেন।

মোবাইল ফোনে দুর্ঘটনায় নিহত বিমানবাহিনীর এক ক্যাপ্টেনের ছবি দেখাচ্ছেন তাঁর স্বজন। এএফপিঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী যানুয়ার নামে এক ব্যক্তি এএফপিকে বলেন, বিমানটি বিমানবন্দর থেকে ওড়ার পর থেকেই তিনি বিমানটিকে দেখছিলেন। তিনি বলেন, ‘আকাশে ওড়ার কিছুক্ষণ পর থেকেই বিমানটি কাঁপতে দেখা যায়। এর পরপরই বিমানটিতে আগুন ধরে যেতে দেখা যায়।’ ।
এ দুর্ঘটনা আবারও দেশটির দুর্বল বিমান পরিবহন ব্যবস্থার দিকে প্রশ্ন ছুড়ে দিল। গত ডিসেম্বরে দেশটির এয়ার এশিয়া কোম্পানির একটি বিমান সাগরে বিধ্বস্ত হয়। আজ বিধ্বস্ত হওয়া বিমানটি ৫১ বছরের পুরোনো। তবে এবারের দুর্ঘটনার পর দেশটির বিমানবাহিনীর প্রধান দাবি করেন, বিধ্বস্ত বিমানটির অবস্থা ভালো ছিল।
কিন্তু এএফপির খবরে বলা হয়, এর আগে ২০১২ সালেও দেশটির বিমানবাহিনীর একটি বিমান রাজধানী জাকার্তার একটি ভবনে আঘাত করে। ওই ঘটনায় ১১ জন মারা যান। এর আগে ২০০৫ সালেও মেদানে একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়। এতে ১৫০ জন মারা গিয়েছিলেন।

শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরো খবর

সম্পাদক ও প্রকাশক

মুহাম্মদ মিজানুর রহমান চৌধুরী

© All rights reserved by Crimereporter24.com
themesba-lates1749691102