81802_1
ভারতের বিপক্ষে দুর্দান্ত জয়ে সিরিজ শেষ করেছে টাইগাররা। কিন্তু মাত্র ৪ দিনের মধ্যেই আরেক সিরিজের প্রস্তুতি নিতে গতকাল মাঠে ফিরেছে জাতীয় দলের প্রায় সব ক্রিকেটার। আজই দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দল আসছে বাংলাদেশ সফরে। সিরিজের প্রথম লড়াই হবে দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে। পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে জয়ের নায়ক ছিলেন সাব্বির রহমান রুম্মান। দলের এই তরুণ ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে নিয়ে বাংলাদেশকে দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে জয় এনে দেন। শুধু তাই নয়, ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ৭ নাম্বারে খেলতে নেমেও তার ব্যাটে ছিল ঝড়। বর্তমান জাতীয় ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলের ফিনিশিং টাচের ভরসা এই তরুণ। তাই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে সিরিজের আগে স্পট লাইট থাকছে এই মারমুখি তরুণের উপরই। গতকাল জাতীয় দলের অনুশীলনের সময় সংবাদ মাধ্যমের আগ্রহটাও ছিল তাকে ঘিরেই। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকাই নয়, কোন দলের বিপক্ষে তিনি কোন লক্ষ্য স্থির করে নামেন না বলে জানিয়ে দিলেন। তার লক্ষ্য ঠিক হয় দলের প্রয়োজনে। আর যদি তার ফিনিশিং টাচে জয় হয় তাহলেতো কথাই নেই। নিজের লক্ষ্য নিয়ে সাব্বির বলেন, ‘আমার ব্যক্তিগত টার্গেট নাই। আমি টার্গেট করে খেলতেও পারি না। আমি ম্যাচ টু ম্যাচ, বল টু বল খেলবো। চেষ্টা করি যে, প্ল্যান অনুযায়ী খেলার জন্য। আমি সবসময় চেষ্টা করি ম্যাচ ফিনিশ করে আসার জন্য। দলের জন্য এটা আমার রোল বলা যায়। সবসময় চেষ্টা করি দায়িত্ব পালন করার জন্য। ভুল হতেই পারে। চেষ্টা করবো ভুলগুলো কম করার জন্য।’
ভারত দল ও দক্ষিণ আফ্রিকা এক নয়। শক্তির দিক থেকেই বেশ পার্থক্য আছে। তবে সাব্বির বিশ্বাস করেন দল যেমনই হোক নিজেদের সেরাটা দিয়েই সিরিজ শেষ করা। তিনি বলেন, ‘আমাদের দলটা এখন আত্মবিশ্বাসী আছে। আশা করি ভাল একটা সিরিজ পার করবো। ইনশাআল্লাহ দেখা যাক কি হয়। অন্য কিছু নিয়ে ভাবছি না।’ তবে দক্ষিণ আফ্রিকার দল আজ বাংলাদেশে আসলেও ভারত সিরিজ শেষে ছুটির কারণে এখনও দলগত ভাবে কোন প্ল্যান করা হয়নি। গতকাল দল অনুশীলন শুরু করে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে নতুন মিশনের। তবে মানসিক প্রস্তুতি অবশ্যই যে যার মতো নিয়ে নিয়েছেন। দলের পরিকল্পনা নিয়ে সাব্বির বলেন, ‘আসলে তেমন কোন প্ল্যানিং এখনও করি নাই আমরা। আমাদের আজকে থেকে অনুশীলন শুরু হয়েছে। এরই মধ্যে হয়তো প্ল্যানিং হয়ে যাবে। তাদের (দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটারদের) দুর্বলতা বের করার চেষ্টা করবো। আর সেই দুর্বলতা অনুসারেই আমরা বোলিং করবো। আর হয়তো ওদের বোলারদের আক্রমণ করার কিছু প্ল্যান করবো। হয়তোবা ওই ভাবেই ব্যাটিং করার চেষ্টা করবো।
এ ছাড়াও টিম ম্যানেজম্যান্টের এখনও কোন সাজেশন পাইনি তাদের পেস বোলারদের নিয়ে। এমনকি আমরা এখনও প্ল্যানও করিনি। আমরা অনেকদিন এশিয়ার মধ্যেই খেলছি। ওরা অনেকদিন পর খেলতে আসছে। আশা করি আমরা স্পিনে বেশি জোর দেবো। ওদের পেস বলে কিছু আমরা আপার লেভেল শট খেলছি, যেমন পুল, স্কয়ার কাট। চেষ্টা করবো ভাল কিছু করার জন্য।’
যতই দিন যাচ্ছে সাব্বির একটু একটু করে যেন পরিপক্ব হচ্ছে। বিশেষ করে মাঠে বড় বড় দলের বিপক্ষে খেলা ছাড়াও। প্রতিপক্ষ তারকা ক্রিকেটারদের সান্নিধ্য পাওয়া ও তাদের কাছ থেকে টিপস নেয়াও তাকে অনেক অভিজ্ঞতা দিচ্ছে বলেই জানান সাব্বির। ভারতের বিপক্ষে সিরিজে অধিনায়ক ধোনির সঙ্গে কথা বলতে পেরে সাব্বির ভীষণ খুশি। তার দেয়া পরামর্শও সাব্বির পালন করবেন বলে জানান। ধোনির সঙ্গে কি কথা হয়েছে তা নিয়ে সাব্বির বলেন, ‘তার (মহেন্দ্র সিং ধোনি) সঙ্গে কথা বলাটা আমার অনেক বড় একটা অর্জন। ধোনি বলেছেন তুমি যেভাবে খেলছো সে ভাবেই খেলবা। যেভাবে তুমি ম্যাচ ফিনিশ করতে পারো ওইভাবে করবা। আর যে রিদমে বা গিয়ারে খেলো ওইভাবে খেলবা। বিশেষ করে ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলবা।’

ওয়াজ কুরুনীখেলাধুলা
ভারতের বিপক্ষে দুর্দান্ত জয়ে সিরিজ শেষ করেছে টাইগাররা। কিন্তু মাত্র ৪ দিনের মধ্যেই আরেক সিরিজের প্রস্তুতি নিতে গতকাল মাঠে ফিরেছে জাতীয় দলের প্রায় সব ক্রিকেটার। আজই দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দল আসছে বাংলাদেশ সফরে। সিরিজের প্রথম লড়াই হবে দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে। পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে জয়ের নায়ক...