1435604862

জেলার পেকুয়ায় টইটংয়ে গাছের সাথে হাত-পা বেঁধে মা ও মেয়েকে নির্যাতনের ঘটনার মূল নায়ক যুবলীগ নেতা জলিল মেম্বারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এক অভিযানে গত রবিবার তাকে গ্রেফতার করা হয়।

থানা সূত্র জানায়, রবিবার বিকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পেকুয়া থানার এসআই শাহজাহান কামাল অভিযান চালিয়ে সমপ্রতি টইটংয়ে সংঘটিত মা-মেয়েকে বেঁধে শারীরিক নির্যাতনের ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্ট আলোচিত জলিল বাহিনীর প্রধান আবদুল জলিল প্রকাশ জলিল মেম্বারকে (৩৫) গ্রেফতার করা হয়। তিনি উপজেলার টইটং ইউনিয়নের বটতলী জুমপাড়া এলাকার মরহুম উকিল আহমদের ছেলে। জানা যায়, গত ১৭ জুন টইটং ইউনিয়নের মাদ্রাসাপাড়ার আহমদ শফির স্ত্রী হাসিনা বেগম ও মেয়ে রুবি আক্তারকে হাত-পা বেঁধে গাছের সাথে রশি দিয়ে ঝুলিয়ে নির্যাতন চালায় জলিল মেম্বারের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী। এ নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের জেরে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

অপরদিকে রবিবার সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পেকুয়া থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নের জালিয়াখালী এলাকার মরহুম আছহাব মিয়ার ছেলে দুর্ধর্ষ ডাকাত গুরা বাদশাকে (৩৮) গ্রেফতার করে। তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলায় সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ রয়েছে। এদিকে পেকুয়ার এ দুই ত্রাসকে পুলিশ গ্রেফতার করায় এলাকার মানুষ স্বস্তি ও সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। পেকুয়া থানার ওসি মো. আবদুর রকিব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ধৃতদের গতকাল সোমবার আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে জানান।

ওয়াজ কুরুনীঅন্যান্য
জেলার পেকুয়ায় টইটংয়ে গাছের সাথে হাত-পা বেঁধে মা ও মেয়েকে নির্যাতনের ঘটনার মূল নায়ক যুবলীগ নেতা জলিল মেম্বারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এক অভিযানে গত রবিবার তাকে গ্রেফতার করা হয়। থানা সূত্র জানায়, রবিবার বিকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পেকুয়া থানার এসআই শাহজাহান কামাল অভিযান চালিয়ে সমপ্রতি টইটংয়ে সংঘটিত মা-মেয়েকে বেঁধে শারীরিক...