db7950e93b5252779f1beb9f203855b5-Untitled-3
তথ্যমন্ত্রী ও জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনুর প্রতি ইঙ্গিত করে সরকার দলীয় জ্যেষ্ঠ সাংসদ সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘মন্ত্রীরা যে যে দলেরই থাকেন, তাঁদের আলাদা এজেন্ডা থাকতে পারে। তাঁরা যা ইচ্ছা বলতে পারেন। কিন্তু এমন কিছু বলবেন না, যাতে আমাদের বিব্রত হতে হয়।’
আজ সোমবার জাতীয় সংসদে বাজেট আলোচনায় সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত এ কথা বলেন। তাঁর এই বক্তব্যের সময় প্রধানমন্ত্রী অধিবেশনকক্ষে ছিলেন।
সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘সংসদে মন্ত্রীরা অনেকে অনেক কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী সংবিধান ও আইনের শাসনের প্রতি অনুগত। আমি নির্বাচন করতে পারব কি পারব না, এ সিদ্ধান্ত সংসদ দিতে পারে না। এর জন্য নির্বাচন কমিশন, উচ্চ আদালত ও সংবিধান রয়েছে। যেহেতু আপনারা মন্ত্রী, আপনাদের বক্তব্যের দায় প্রধানমন্ত্রীর ওপর বর্তায়। খালেদা জিয়ার বিচারে কী হবে। ২১ আগস্ট, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় তাঁর কী শাস্তি হবে, সেটা আদালত বুঝবে।’
প্রসংগত, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু সংসদে বাজেট আলোচনায় বলেছিলেন, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ২০১৯ সালের নির্বাচনে অংশগ্রহণের সুযোগ থাকবে না।
বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে হাউস অব কমন্সে আলোচনা করায় ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সমালোচনা করে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘এক রাষ্ট্রের সঙ্গে আরেক রাষ্ট্রের একটা সম্পর্ক আছে। সেখানে কিছু পরামর্শ দিতে পারে, কিন্তু এভাবে এক পার্লামেন্ট আরেক পার্লামেন্টের বিষয় নিয়ে বিদ্বেষপূর্ণ কথা বলতে পারে না। এতে পার্লামেন্টের মর্যাদা নষ্ট হয়।’

ওয়াজ কুরুনীপ্রথম পাতা
তথ্যমন্ত্রী ও জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনুর প্রতি ইঙ্গিত করে সরকার দলীয় জ্যেষ্ঠ সাংসদ সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘মন্ত্রীরা যে যে দলেরই থাকেন, তাঁদের আলাদা এজেন্ডা থাকতে পারে। তাঁরা যা ইচ্ছা বলতে পারেন। কিন্তু এমন কিছু বলবেন না, যাতে আমাদের বিব্রত হতে হয়।’ আজ সোমবার জাতীয় সংসদে বাজেট আলোচনায় সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত...