1435077629
আসন্ন ঈদুল ফিতরে মানুষ যাতে নির্বিঘ্নে ঘরে ফিরতে পারে সেজন্য আগামী ১০ জুলাই থেকে ১৯ জুলাই ২৪ ঘন্টাই খোলা থাকবে দেশের সব সিএনজি স্টেশন। পাশাপাশি প্রচলিত রুটের বাইরে আরও দশটি রুট নির্ধারণ করছে সরকার।

এছাড়া ঈদের আগের তিনদিন ও পরের তিনদিন মহাসড়কে কাঁচাপণ্য, ওষুধ, জ্বালানি ও পোশাক শিল্পের পণ্য বহনকারী ট্রাক বা লরি ব্যতীত সকল প্রকার ট্রাক-লরি, নসিমন-করিমন, ইজি-বাইক, মাহেন্দ্র ও টেম্পো চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য-দ্রব্য, পচনশীল দ্রব্য, গার্মেন্টস পণ্য, ওষুধ, কাঁচা চামড়া এবং জ্বালানি বহনকারী যানবাহন এর আওতামুক্ত থাকবে।

রাজধানীর বিয়াম মিলনায়তনে মঙ্গলবার বিকালে আন্তঃমন্ত্রণালয় পর্যায়ের এক বৈঠক শেষে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের পক্ষ থেকে এসব তথ্য জানানো হয়।

বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, ঈদের সময় একই দিনে সকল গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি ছুটি দেয়া ও খোলা যাবে না। যানজট ও মানুষের চাপ কমাতে ভিন্ন ভিন্ন দিনে গার্মেন্টসগুলোকে ছুটি দেয়া ও খোলার জন্য এফবিসিসিআই, বিজিএমইএ ও বিকেএমইএ-কে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ঘরমুখো ও ঢাকা ফেরত মানুষের কাছ থেকে সরকার নির্ধারিত ভাড়ার অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বা দাবি করতে যেন না পারে সেজন্য ঢাকা মহানগরীর সায়েদাবাদ, মহাখালী ও গাবতলী বাস টার্মিনালের জন্য পৃথক তিনটি ভিজিলেন্স টিম গঠন করা হবে।

এছাড়া গতবছর ভয়াবহ নৌ-দুর্ঘটনা মাথায় রেখে এ বছর যেকোনো প্রকার দুর্ঘটনা ঘটলে সঙ্গে সঙ্গে উদ্ধার কাজের জন্য ফায়ার সার্ভিস, নৌ-বাহিনী, পুলিশ, র‍্যাব, সেনাবাহিনী ও বিমানবাহিনীর বিশেষ টিম প্রস্তুত রাখার কথা বলা হয়েছে। একই সঙ্গে সেনাবাহিনী, বিমানবাহিনী ও র‍্যাবের হেলিকপ্টার প্রস্তুত রাখার কথা বৈঠকে বলা হয়েছে।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সভাপতিত্বে এ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রেলপথমন্ত্রী মুজিবুল হক, নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান, স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাসির, পুলিশের মহাপরিদর্শক এ কে এম শহীদুল হক, র‍্যাবের ডিজি বেনজির আহমেদ, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আসাদুজ্জামানসহ আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

হীরা পান্নাপ্রথম পাতা
আসন্ন ঈদুল ফিতরে মানুষ যাতে নির্বিঘ্নে ঘরে ফিরতে পারে সেজন্য আগামী ১০ জুলাই থেকে ১৯ জুলাই ২৪ ঘন্টাই খোলা থাকবে দেশের সব সিএনজি স্টেশন। পাশাপাশি প্রচলিত রুটের বাইরে আরও দশটি রুট নির্ধারণ করছে সরকার। এছাড়া ঈদের আগের তিনদিন ও পরের তিনদিন মহাসড়কে কাঁচাপণ্য, ওষুধ, জ্বালানি ও পোশাক শিল্পের পণ্য...