1434780429
মুখের সৌন্দর্যকে আরও বাড়িয়ে দিতে সুন্দর গোলাপী ঠোঁটের বিকল্প নেই। তাই সাজতে গিয়ে শুধু চোখ সাজালেই হয় না, ঠোঁটও সুন্দর করে সাজাতে হয়। সুন্দর, স্বাস্থ্যকর একজোড়া গোলাপি ঠোঁট কমবেশি সবারই কাম্য। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় কারও কারও ঠোঁট জন্মগতভাবেই একটু কালচে ধরনের হয়ে থাকে। আবার সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি, ধূমপান, চা/কফি পান এবং বয়স ইত্যাদি বিভিন্ন কারণেও ঠোঁটে কালচে ভাব চলে আসতে পারে। তখন খুবই অস্বস্তিকর অবস্থায় পড়তে হয়। তবে কিছু নিয়ম মেনে চললে ঠোঁটের স্বাভাবিক সৌন্দর্য ধরে রাখা সম্ভব। নিয়মিত যত্নে শুধু ঠোঁটের স্বাভাবিক সৌন্দর্যই ফিরে আসে না, একইসঙ্গে কালচে ভাবও দূর হয়।

কাজেই জেনে নিন ঠোঁটের কালচে ভাব দূর করতে যা করবেন-

মধু
মধু শুধু ত্বক নয়, ঠোঁটের জন্যও অনেক বেশি কার্যকর। এটি ঠোঁটের কালচে ভাব দূর করে ঠোঁটকে কোমল করে তুলতে সাহায্য করে। এজন্য প্রতিদিন রাতে ঘুমানোর আগে সামান্য একটু মধু নিয়ে ঠোঁটে লাগিয়ে সারারাত রাখুন। এভাবে নিয়মিত ব্যবহারে ঠোঁটের কালচে ভাব দূর হবে।

লেবুর রস
ঠোঁটের কালচে ভাব দূর করতে এটিও খুবই কার্যকরী একটি উপাদান। প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে সামান্য লেবুর রস দিয়ে ঠোঁট ভালো ভাবে ম্যাসাজ করলে সহজেই এর কালচে ভাব দূর হবে।

চিনি
চিনি দিয়ে ঠোঁট স্ক্রাব করলে ঠোঁটের কালচে ভাব দূর হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এর মরা চামড়াও দূর হয়। এজন্য তিন চামচ চিনি ও দুই চামচ বাটার একসঙ্গে মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে সপ্তাহে অন্তত ২ বার ঠোঁটে লাগান। এভাবে নিয়মিত ব্যবহার দেখবেন আপনার ঠোঁটে গোলাপী আভা আবারও ফিরে আসবে।

বরফ
যে কোন দাগের ওপর বরফ ঘষলে দাগ হালকা হয়ে যায়। কাজেই প্রতিদিন ঠোঁটে এক টুকরো বরফ ঘষুন। এতে ঠোঁটের কালচে ভাব দূর হওয়ার পাশাপাশি রুক্ষতার হাত থেকেও রেহাই পাবে।

দুধের সর
ঠোঁটের গোলাপী আভা ধরে রাখতে দুধের সরের বিকল্প নেই। চাইলে দুধের সরের সঙ্গে মধু মিশিয়ে নিতে পারেন। এভাবে বেশ কিছুদিন ব্যবহার করলে ঠোঁটের সৌন্দর্য আবারও ফিরে আসবে।

কেবল সঠিক যত্নই পারে ঠোঁটের সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনতে। কাজেই উপরোক্ত উপায়গুলো অবলম্বন করে ঠোঁটের কালচে ভাব দূর করুন এবং ঠোঁটের গোলাপী আভা ফিরিয়ে আনুন।

তুনতুন হাসানস্বাস্থ্য কথা
মুখের সৌন্দর্যকে আরও বাড়িয়ে দিতে সুন্দর গোলাপী ঠোঁটের বিকল্প নেই। তাই সাজতে গিয়ে শুধু চোখ সাজালেই হয় না, ঠোঁটও সুন্দর করে সাজাতে হয়। সুন্দর, স্বাস্থ্যকর একজোড়া গোলাপি ঠোঁট কমবেশি সবারই কাম্য। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় কারও কারও ঠোঁট জন্মগতভাবেই একটু কালচে ধরনের হয়ে থাকে। আবার সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি,...