শিরোনাম

পশুবোঝাই গাড়ির দিকে না তাকানোর নির্দেশ চট্টগ্রাম পুলিশ সুপারের

92477_x3
পশুবোঝাই যানবাহনের দিকে চাঁদাবাজদের চোখ তুলে না তাকাতে নির্দেশ দিয়েছেন চট্টগ্রাম পুলিশ সুপার (সিএমপি) একেএম হাফিজ আক্তার। পাশাপাশি চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জিরো টলারেন্স দেখাবে বলেও হুশিয়ার করেন তিনি।
গতকাল চট্টগ্রামের পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘শ্রমিক সংগঠন হোক কিংবা যে কোনো সংগঠনের নেতাকর্মী হোক, পুলিশ কিংবা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা, কেউ গরুর গাড়ির দিকে চোখ তুলে তাকাবেন না।’
তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন জায়গা থেকে অভিযোগ পাচ্ছি বিভিন্ন সংগঠনের নামে চাঁদা আদায় করা হচ্ছে। কিন্তু আমরা প্রতিবারের মতো এবারও চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সে আছি।’ চলতি বছর চট্টগ্রামের অলংকার মোড়, মিরসাইয়ের বারইয়ারহাট, সীতাকুন্ডের কালু শাহ মাজার সহ কয়েকটি জায়গায় বিভিন্ন সংগঠনের নামে চাঁদা আদায় হচ্ছে বলেও জানান তিনি। তবে গত বছর লোহাগাড়া উপজেলার দিকে চাঁদাবাজি বেশি হয়েছিল। তাছাড়া বিভিন্ন জায়গায় গাড়ি থামিয়ে জোরপূর্বক ব্যাপারিদের গরু বিক্রি করতে বাধ্য করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি। আর এসব সন্ত্রাসী কার্যক্রম বন্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণের কথা জানিয়ে হাফিজ আক্তার বলেন, ‘আপনারা প্রয়োজনে মোবাইলে চাঁদাবাজদের ছবি তুলুন। সেগুলো আমাদের দিন। আমরা তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবো।’
এদিকে রাস্তায় গাড়ি চলাচল নির্বিঘ্ন করতে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। তিনি জানান, ‘সড়কে যানজট নিরসন, ঘরমুখী যাত্রীদের নির্বিঘ্ন যাতায়াত নিশ্চিত ও পশুবোঝাই যানবাহন যাতে নির্ভয়ে সড়কে যাতায়াত করতে পারে সে জন্য পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আপনারা যে কোনো সমস্যায় পড়লে পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করলে পুলিশ যথাযথ ব্যবস্থা নেবে।’ এছাড়াও সড়কে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব ও হাইওয়ে পুলিশ নিয়োজিত থাকবে। মতবিনিময় সভায় পরিবহন মালিক শ্রমিকরাও তাদের বিভিন্ন মতামত ও অভিযোগ তুলে ধরেন। সভায় চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উত্তর) মোস্তাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) হাবিবুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) মুহাম্মদ নাঈমুল হাছান এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) মো. শহীদুল্লাহ র‌্যাব, সিএমপি, বিআরটিসি, সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।