f3823c68463957cd3301fca9d0b62d5c-Sourav-Ganguly-10282
বৃহস্পতিবারের খেলাটা দেখে অতীত দিনের কথা মনে পড়ে গিয়েছিল ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলির। সেই দিন গুলো, যখন বাংলাদেশ খুব সহজেই আত্মসমর্পণ করত ভারতের কাছে। সেই দিনগুলোর কথা, যখন ‘ইতিবাচক’ কোনো ব্যাপারই থাকত না বাংলাদেশের ক্রিকেটীয় ভাবনায়।
নতুন দিনের এই বাংলাদেশ মুগ্ধ করেছে সৌরভকে। নতুন বাংলাদেশের আগ্রাসী ক্রিকেট, শরীরী ভাষায় প্রতিপক্ষকে ‘খুন’ করার অভিব্যক্তি অবাক ও বিস্মিত করেছে সৌরভকে, ‘বৃহস্পতিবার ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের বিপক্ষে বাংলাদেশ কীভাবে ফিল্ডিং সাজিয়েছিল, সেটা নিয়ে বিশ্লেষণ করলেই বাংলাদেশের ক্রিকেটের ইতিবাচক দিকটি বেরিয়ে আসে। সেদিন দেখলাম ইনার সার্কেলে ওরা অনেক বেশি ফিল্ডার রাখছে। এই ব্যাপারটা এসেছে আক্রমণাত্মক ভাবনা থেকে। এই দলটা এখন খেলার আগেই হেরে বসে না।’
অতীতের বাংলাদেশের একটা উদাহরণও টেনেছেন সৌরভ, ‘আমি দেখেছি আগে ভারত বা বড় দলগুলোর বিপক্ষে ওরা ফিল্ডিং ছড়িয়ে দিত। ব্যাপারটা ছিল নেতিবাচক। কিন্তু এখন ব্যাপারটা পুরোপুরি পাল্টে গেছে।
সিরিজের প্রথম ম্যাচে ৭৯ রানে ভারতের হারটা কষ্ট দিলেও সৌরভ আশাবাদী দলের ঘুরে দাঁড়ানোর ব্যাপারে। তিনি বলেন, ‘একটি ম্যাচ ভারত হেরেছে ঠিকই। কিন্তু আমার বিশ্বাস কোহলি পরের দুটো ম্যাচে দারুণ খেলেই সিরিজ নিজেদের করে নেবে। এই সিরিজটা ভারতই জিতবে।’
প্রথম ম্যাচে হারের মূল কারণ হিসেবে বাংলাদেশকে ‘হালকাভাবে নেওয়া’র বিষয়টি উল্লেখ করেন সৌরভ। তাঁর মতে, মুখে যা-ই বলুক, কোহলিরা বাংলাদেশকে হালকাভাবে নিয়েছিল। যে দল পাকিস্তানকে পরপর চারটি ম্যাচে হারিয়েছে তাদের হালকাভাবে নেওয়া মোটেও উচিত হয়নি।’
প্রথম ওয়ানডেতে ধোনি-কাণ্ডে নির্লিপ্ত সৌরভ। ভারতের অন্যতম সফল এই অধিনায়কের মতে, ‘ধোনি বাংলাদেশের বোলার মুস্তাফিজকে ইচ্ছা করে ধাক্কা দেয়নি। এটা ধোনি করতেই পারে না। সে বরং বাজে ধরনের সংঘর্ষটাই হাত দিয়ে ঠেকিয়েছে।’ সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা।

হীরা পান্নাখেলাধুলা
বৃহস্পতিবারের খেলাটা দেখে অতীত দিনের কথা মনে পড়ে গিয়েছিল ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলির। সেই দিন গুলো, যখন বাংলাদেশ খুব সহজেই আত্মসমর্পণ করত ভারতের কাছে। সেই দিনগুলোর কথা, যখন ‘ইতিবাচক’ কোনো ব্যাপারই থাকত না বাংলাদেশের ক্রিকেটীয় ভাবনায়। নতুন দিনের এই বাংলাদেশ মুগ্ধ করেছে সৌরভকে। নতুন বাংলাদেশের আগ্রাসী ক্রিকেট, শরীরী ভাষায়...