শিরোনাম

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভ্যাট প্রত্যাহার চায় জাতীয় পার্টি

jp_161393
বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে টিউশন ফি’র ওপর আরোপিত মূল্য সংযোজন করকে (ভ্যাট) ‘চরম জনস্বার্থ পরিপন্থী’ আখ্যা দিয়ে তা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টি।

দলটির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ও মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু শুক্রবার এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেন, ‘শিক্ষা কোন পণ্য নয় যে, এটার ওপর ভ্যাট আরোপ করা যাবে।’

চলতি বছরের বাজেটে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের টিউশন ফি’র ওপর সাড়ে সাত শতাংশ ভ্যাট আরোপ করে সরকার। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এর প্রতিবাদে রাজপথে নেমেছে। তাদের আন্দোলনে বৃহস্পতিবার অচল হয়ে যায় রাজধানী। আন্দোলনে নৈতিক সমর্থন জানিয়েছে বিএনপি। একাধারে বিরোধী দল ও সরকারের শরিক জাতীয় পার্টিও এবার ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবি জানাল।

এরশাদ ও জিয়াউদ্দিন বাবলু যুক্ত বিবৃতিতে বলেন, ‘শিক্ষা নাগরিকের অধিকার। সেই শিক্ষা ব্যবস্থার ওপর ভ্যাট আরোপের সিদ্ধান্তর চেয়ে জনস্বার্থ পরিপন্থী আর কোনো কাজ থাকতে পারে না। এই খাতে ভ্যাট আরোপ করা হলে- এটাই প্রতীয়মান হবে যে, সরকার শিক্ষার অগ্রগতি চায় না। এর ফলে বেসরকারি শিক্ষা কার্যক্রম চরমভাবে ব্যাহত হবে।’

সরকারের অর্থ সংকট দূর করতে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভ্যাট না চাপিয়ে দুর্নীতি দূর করার পরামর্শ দেন এরশাদ ও জিয়াউদ্দিন বাবলু।

তারা বিবৃতিতে বলেন, ‘সরকারের যদি এতই অর্থ সংকট হয়ে থাকে তাহলে ব্যাংক থেকে যে পরিমাণ অর্থ লুটপাট হয়েছে সেই টাকা উদ্ধার করা হোক। যারা বিদেশে অর্থ পাচার করেছে সেই অর্থ দেশে ফেরত এনে সরকারি কোষাগারে জমা করা হোক। কিন্তু কোনোভাবেই ছাত্রছাত্রীদের শিক্ষা ব্যবস্থার ওপর ভ্যাট আরোপ করবেন না।’

ভ্যাট শিক্ষার্থীদের নয়, বিশ্ববিদ্যালয়কে দিতে হবে— সরকারের এই ঘোষণার বিশ্বাসযোগ্যতা নেই বলে মনে জাতীয় পার্টি। বিবৃতিতে দলের দুই শীর্ষ নেতা এ বলেন, ‘ভ্যাট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ওপর চাপিয়ে দেওয়ার কথা বলা হলেও পরোক্ষভাবে তা ছাত্রছাত্রীদের ওপরেই বর্তাবে।’