mustafiz_88233.png
ভারতের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে ৭৯ রানের বিশাল ব্যবধানে জয় পায় বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত ওই ম্যাচের পর ভারতের গণমাধ্যমগুলোতে টাইগারদের বন্দনা হয়েছে। ভারতের জনপ্রিয় পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনের উল্লেখযোগ্য কিছু অংশ আমাদের সময়ের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলোÑ

শিরোনাম : ধোনির ভুল অজানা আতঙ্কে মেলবোর্নের বদলা।
দুই প্রতিবেশীর এক যুদ্ধকে কীভাবে ক্রিকেটের ২২ গজ থেকে তুলে এনে জীবনের ২২ গজে আছড়ে ফেলা যায়, দেখে নিল বৃহস্পতিবারের মিরপুর মাঠ। কোনো সন্দেহ নেই চার মাস ধরে পুড়ে চলা এক অপমানের বৃত্ত এদিন মিরপুর মাঠে শেষ করে ফেললেন ১১ বাঙালি। বিশ্বকাপ কোয়ার্টার ফাইনালে হারের প্রতিশোধ নিয়ে। মহেন্দ্র সিং ধোনির ‘মহাভারত’-কে ধুলোয় মিশিয়ে। কিন্তু ম্যাচের সেটি একমাত্র আঙ্গিক ভাবলে চরমতম অন্যায় হবে। বাংলাদেশ দেখিয়ে দিল, বিশ্বকাপ কোয়ার্টার ফাইনাল ফুক ছিল না। দেখিয়ে দিল, পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জয়কে আশ্চর্যের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে দেখার কোনো দরকার ছিল না। এশীয় ক্রিকেটে তো বটেই, গোটা ওয়ানডে পৃথিবীতেই তারা এখন দুর্নিবার শক্তি। যারা ইংল্যান্ডকে হারাতে পারে। পাকিস্তানকে পারে। ভারতকেও পারে। পারে এক অজানা আতঙ্ককে লেলিয়ে দিয়ে।Ñআনন্দবাজার
শিরোনাম : বাঘের হানায় সাবাড় ধোনিরা।
বাংলাদেশ আর নখদন্তহীন বাঘ নয়। তাদের যে ‘টাইগার’ বলা হয় তা সত্যিই তারা বাঘের মতো বড় শিকার ধরতে পারেন বলে। কে বলবে প্রতিপক্ষের নাম বাংলাদেশ! কে বলবে মিরপুর! বরং দেখে মনে হচ্ছে ভারত মেলবোর্নে খেলছে। আর প্রতিপক্ষের নামও যেন অস্ট্রেলিয়া। প্রথম বল থেকে যাদের শরীরীভাষাটাই আক্রমণাত্মক। নাহ, ভুল লেখা হলো। আসলে ছিল প্রবল আক্রমণাত্মক।Ñএবেলা
শিরোনাম : বাঙালি বাঘের থাবায় ক্ষতবিক্ষত ভারত।
আসল ঝড় অবশ্য এক বাংলার পেসারের। আর তাতেই পদ্মাপাড়ে উড়ে গেল টিম ইন্ডিয়া। বিশ্বকাপে বঞ্চনার শিকার বলে যে আগুন বুকে নিয়ে বসেছিল বাংলাদেশ, তাতেও যেন পুড়তে হলো ভারতকে।?মাঠের ভেতর এই চেনা বাংলাদেশকে চিনতেই বোধহয় ভুল হয়েছিল ধোনির! বোঝেননি বাংলাদেশের তাগিদটা। সে জন্যই ভারতের বিপক্ষে সেরা ৩০৭ স্কোর তুলে ফেলল বাংলাদেশ।Ñএইসময়
শিরোনাম : ভারতকে হারিয়ে বিশ্বকাপের বদলা নিল বাংলাদেশ।
ভারতের এই বাংলাদেশ সফর ঘিরে অনেকই হাসাহাসি করেছিলেন। একটা সময় শোনা গিয়েছিল, দ্বিতীয়সারির দল পাঠাবে বিসিসিআই। বাংলাদেশের মাটিতে পাকিস্তানের বিপর্যয় দেখার পর মনটা বদলে ফেলেছিলেন জাতীয় দলের নির্বাচকরা। তাই সিনিয়র ক্রিকেটাররা বিশ্রাম চাইলেও তা মানা হয়নি। কিন্তু পুরো শক্তি নিয়ে মাঠে নেমেও বাংলাদেশের বিপক্ষে ভারতীয় দলের করুণ পরিস্থিতি দেখে অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায়ে লিখছেনÑ তাহলে কি সত্যিই বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে আম্পায়ারদের থেকে সুবিধা পেয়েছিলেন ধোনিরা?Ñবর্তমান

কংকা চৌধুরীখেলাধুলা
ভারতের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে ৭৯ রানের বিশাল ব্যবধানে জয় পায় বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত ওই ম্যাচের পর ভারতের গণমাধ্যমগুলোতে টাইগারদের বন্দনা হয়েছে। ভারতের জনপ্রিয় পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনের উল্লেখযোগ্য কিছু অংশ আমাদের সময়ের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলোÑ শিরোনাম : ধোনির ভুল অজানা আতঙ্কে মেলবোর্নের বদলা। দুই প্রতিবেশীর এক যুদ্ধকে কীভাবে ক্রিকেটের ২২...