888
মালয়েশিয়া থেকে ৬১ জন বাংলাদেশিকে গতকাল দেশে ফেরত আনা হয়েছে। অবৈধভাবে সাগরপথে মালয়েশিয়া যাওয়ার সময় তারা আটক হন। বাংলাদেশ দূতাবাস ও আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) যৌথভাবে তাদের দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করে।

আইএমওর বাংলাদেশের মুখপাত্র আসিফ মুনির ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, বিকালে ৬১ জন বাংলাদেশিকে ঢাকায় আনা হয়। হযরত শাহজালাল (রহ.) বিমানবন্দরের একটি সূত্র ওই ৬১ জনের ফেরত আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

এদিকে মিয়ানমারের জলসীমা থেকে উদ্ধার হওয়া অধিবাসীদের মধ্যে ৩৭ বাংলাদেশিকেও আজ ফেরত আনার কথা রয়েছে। তাদের ফেরত আনার ব্যাপারে ইতিমধ্যে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী পর্যায়ে সব আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়েছে বলে ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানিয়েছেন কঙ্বাজার বিজিবির সেক্টর কমান্ডার কর্নেল এম এম আনিসুর রহমান।

জানা গেছে, গত ২১ মে মিয়ানমারের জলসীমায় ভাসমান অবস্থায় ২০৮ জন মালয়েশিয়া যাত্রী অভিবাসীকে উদ্ধার করেছে মিয়ানমারের নৌবাহিনী। এ সময় মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ এই অভিবাসীর মধ্যে ২০০ জন বাংলাদেশি বলে দাবি করে আসছিল। এরই পরিপ্রেক্ষিতে যাচাই-বাছাই শেষে ৮ জুন মিয়ানমারের ঢেকিবনিয়া বিজিপি ক্যাম্পে উভয় দেশের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল পতাকা বৈঠকে বসে। পরে ১৫০ জন বাংলাদেশিকে আনুষ্ঠানিকভাবে ফেরত আনা হয়। বাকি ৫৮ জনের মধ্যে ৩৭ জনকে আবারও যাচাই-বাছাই শেষে বাংলাদেশি শনাক্ত করে তাদের ফেরত আনার প্রক্রিয়া চূড়ান্ত হয়। তাদের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্ত দিয়ে ফেরত আনা হবে।

তুনতুন হাসানপ্রবাস জীবন
মালয়েশিয়া থেকে ৬১ জন বাংলাদেশিকে গতকাল দেশে ফেরত আনা হয়েছে। অবৈধভাবে সাগরপথে মালয়েশিয়া যাওয়ার সময় তারা আটক হন। বাংলাদেশ দূতাবাস ও আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) যৌথভাবে তাদের দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করে। আইএমওর বাংলাদেশের মুখপাত্র আসিফ মুনির ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, বিকালে ৬১ জন বাংলাদেশিকে ঢাকায় আনা হয়। হযরত শাহজালাল...