1437294203

হবিগঞ্জের লাখাইয়ে আম ক্রয় নিয়ে বিরোধের জের ধরে রবিবার দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়েছে। ৩ ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৪৪ রাউন্ড রাবার বুলেট ও গ্যাস নিক্ষেপ করেছে। এ ঘটনায় এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

পুলিশ জানায়, ওই উপজেলার মুড়িয়াউক ইউনিয়নের তেঘরিয়া গ্রামের জাকির ঈদের আগের দিন পার্শ্ববর্তী বুল্লা ইঊনিয়নের সিংহগ্রামের শাহজাহানের দোকানে আম ক্রয় করতে যান। এ সময় তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এর জের ধরে উভয়ের পক্ষে তাদের গ্রামের লোকজন সংঘর্ষের সিদ্ধান্ত নেয়। এর প্রেক্ষিতে তারা টেটা, বল্লম, ফিকলসহ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র প্রস্তুত করতে থাকে।

রবিবার সকাল ১০টায় এক গ্রামের লোকজন আরেক গ্রামের লোকজনকে ডাকাডাকি করতে থাকে। এক পর্যায়ে উভয়পক্ষ একে অপরের ওপর ঝাপিয়ে পড়লে সংঘর্ষ শুরু হয়। মুহূর্তের মধ্যে সংঘর্ষ আশপাশের কয়েক গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। খবর পেয়ে প্রথমে লাখাই থানার পুলিশ গিয়ে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে আনতে হিমশিম খায়। পরে হবিগঞ্জ থেকে সহকারী পুলিশ সুপারসহ অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করতে ৪১ রাউন্ড রাবার বুলেট ও ৩ রাউন্ড টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করে।

এদিকে সংঘর্ষে সিংহগ্রামের কদর আলী (৫৫) ঘটনাস্থলেই মারা যান। উভয়পক্ষের উল্লেখিত সংখ্যক লোক আহত হয়। গুরুতর আহতদের সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একই গ্রামের বকুল মিয়া (৩৫) মারা যান।

ওয়াজ কুরুনীস্বদেশের খবর
হবিগঞ্জের লাখাইয়ে আম ক্রয় নিয়ে বিরোধের জের ধরে রবিবার দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়েছে। ৩ ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৪৪ রাউন্ড রাবার বুলেট ও গ্যাস নিক্ষেপ করেছে। এ ঘটনায় এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।...