image_272743.a
সৌদি আরবের মিনায় স্ত্রী রওশন আরা মৃধাকে (৪৫) বাঁচাতে গিয়েই পদদলিত হন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবার বাদৈর ইউনিয়নের মান্দারপুর গ্রামের দক্ষিনপাড়ার গোলাম মোস্তফা খালেক (৫৫)। চাকরি জীবন থেকে অবসর নেওয়ার প্রায় ১৩ মাস পর তিনি স্ত্রীকে নিয়ে হজ করতে যান। তিনি রেলওয়ের টেলিকম বিভাগের কর্মচারী ছিলেন।

গোলাম মোস্তফার ছেলে ইয়াছিন ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, গত ২৪ শে সেপ্টেম্বর বিকেলে মোয়াল্লেম সাইফুল ইসলামের মাধ্যমে তার পিতা মারা গেছেন বলে খবর পান। তিনি বলেন, “আম্মাকে সেইভ করতে গিয়েই আব্বা মারা গেছেন। আব্বা পড়ে যাওয়ার পরই আম্মা আব্বাকে জড়িয়ে ধরেছিলেন। তখন তিনি পায়ে ব্যাথা পান।” গোলাম মোস্তফার পরিবার ঢাকার আশকোনায় বসবাস করেন। গ্রামে তাদের আত্মীয় স্বজনরা রয়েছেন।

ইয়াছিন ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, তাদের মায়ের সঙ্গে তাদের কথা হয়েছে। ঘটনার খবর পাওয়ার পর থেকেই পরিবারের সবাই কান্নাকাটিতে ভেঙ্গে পড়েন। ‌এ ঘটনায় গ্রামের বাড়িতেও শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/09/image_272743.a.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/09/image_272743.a-300x200.jpgশুভ সমরাটশেষের পাতা
সৌদি আরবের মিনায় স্ত্রী রওশন আরা মৃধাকে (৪৫) বাঁচাতে গিয়েই পদদলিত হন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবার বাদৈর ইউনিয়নের মান্দারপুর গ্রামের দক্ষিনপাড়ার গোলাম মোস্তফা খালেক (৫৫)। চাকরি জীবন থেকে অবসর নেওয়ার প্রায় ১৩ মাস পর তিনি স্ত্রীকে নিয়ে হজ করতে যান। তিনি রেলওয়ের টেলিকম বিভাগের কর্মচারী ছিলেন। গোলাম মোস্তফার ছেলে ইয়াছিন...