Brammoman
লালমনিরহাটের আদিতমারীতে স্কুল ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করার দায়ে আতিকুর রহমান আতিক (২০) নামে এক যুবককে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

গতকাল বুধবার রাত ১১টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও আদিতমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জহুরুল ইসলাম এ আদেশ দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আতিক আদিতমারী উপজেলার পলাশী ইউনিয়নের রথেরপাড় গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে।

আদিতমারী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহিন আকতার ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, আদিতমারী জিএস উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে প্রায় সময় মোবাইলে ও স্কুল যাওয়া-আসার পথে উত্ত্যক্ত করতেন আতিক।

বুধবার বিকেলে স্কুল ছুটির পর ওই ছাত্রী বাসায় ফিরছিল। পথে জনতা ব্যাংক মোড়ে পথরোধ করে তাকে কুপ্রস্তাব দেন এবং মোবাইল ফোনে ওই ছাত্রীর ছবি তোলেন তিনি। এ সময় ছাত্রীর চিৎকারে স্থানীয়রা আতিককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

রাতে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হয় তাকে। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ইউএনও জহুরুল ইসলাম বখাটে যুবককে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে আতিককে লালমনিরহাট কারাগারে পাঠানো হবে বলে ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে নিশ্চিত করেছেন জানান এসআই।

ওয়াজ কুরুনীআইন-আদালত
লালমনিরহাটের আদিতমারীতে স্কুল ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করার দায়ে আতিকুর রহমান আতিক (২০) নামে এক যুবককে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। গতকাল বুধবার রাত ১১টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও আদিতমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জহুরুল ইসলাম এ আদেশ দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত আতিক আদিতমারী উপজেলার পলাশী ইউনিয়নের রথেরপাড় গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে। আদিতমারী...