আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।
সৌদি আরবে মার্কিন রাষ্ট্রদূত হিসেবে সাবেক জেনারেল জন আবিজায়িদের মনোনয়ন নিশ্চিত করা নিয়ে বুধবার সিনেটের এক শুনানিতে আইনপ্রণেতারা দেশটির ও এর যুবরাজের কড়া সমালোচনা করা হয়েছে।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।
সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান ‘পুরাই গুণ্ডা’ হয়ে গেছেন বলে তারা অভিযোগ করেন।

২০১৭ সালের জানুয়ারিতে ট্রাম্প প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে রিয়াদে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতের পদটি খালি পড়ে ছিল। সম্প্রতি জেনারেল আবিজায়িদকে রিয়াদে মার্কিন রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মার্কিন সামরিক বাহিনীর সাবেক এই চার তারকা জেনারেল সহজেই সিনেটের সমর্থন পাবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

ইরাক যুদ্ধের সময় আবিজায়িদ মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ডের দায়িত্বে ছিলেন। ওই শুনানিতে ট্রাম্পের রিপাবলিকান দলের পাশাপাশি বিরোধী ডেমোক্রেট দলীয় সিনেটররাও ছিলেন। তারা সবাই সৌদি আরবের নিন্দা করেছেন। তাদের সমালোচনার কেন্দ্রে ছিল ইয়েমেনের গৃহযুদ্ধে সৌদির আরবের জড়িয়ে পড়া, দেশটির এলোমেলো কূটনৈতিক তত্পরতা ও মানবাধিকার ক্ষুণ্নের ঘটনা।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। সূত্র : রয়টার্সে

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2019/03/59.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2019/03/59.jpgজান্নাতুল ফেরদৌস মেহরিনআন্তর্জাতিক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক । সৌদি আরবে মার্কিন রাষ্ট্রদূত হিসেবে সাবেক জেনারেল জন আবিজায়িদের মনোনয়ন নিশ্চিত করা নিয়ে বুধবার সিনেটের এক শুনানিতে আইনপ্রণেতারা দেশটির ও এর যুবরাজের কড়া সমালোচনা করা হয়েছে।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান ‘পুরাই গুণ্ডা’ হয়ে গেছেন বলে তারা অভিযোগ করেন। ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে ট্রাম্প...