1442905548
বঙ্গোপসাগরে ঝড়ের কবলে পড়ে ট্রলার ডুবির ঘটনায় নিখোঁজ ১০৩ জন জেলেকে পৃথক অভিযানে সাগরে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করেছে নৌ বাহিনী, কোস্ট গার্ড ও র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা।

রবিবার ট্রলার ডুবির ঘটনার পর ঐ জেলেরা সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত হিরণ পয়েন্ট, ফেয়ারওয়ে বয়া ও দুবলার চর সংলগ্ন সাগরে ভাসমান অবস্থায় ছিলেন।

কোস্ট গার্ড জানায়, উদ্ধার হওয়া জেলেরা সবাই সুস্থ আছেন।

কোস্ট গার্ডের পশ্চিম জোনের (মংলা) অপারেশন অফিসার লে. এ এম রাহাতুজ্জামান ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, রবিবার ঝড়ের কবলে পড়ে বঙ্গোপসাগরের বিভিন্ন স্থানে বেশ কিছু মাছ ধরার ট্রলার ডুবে যায়। এতে অনেক জেলে নিখোঁজ হয়। পরে খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালায় নৌ বাহিনী ও কোস্ট গার্ড। হিরণপয়েন্ট থেকে নৌ বাহিনী ২৫ জন ও ফেয়ারওয়ে বয়া এলাকা থেকে কোস্ট গার্ড ৫০ জন ও সুন্দরবনের মেহেরআলী চর সংলগ্ন সাগর থেকে ২৮ জন জেলেকে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করেছে র‌্যাব-৮।

র‌্যাব-৮ এর উপ অধিনায়ক মেজর আদনান কবির ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, সুন্দরবনের মেহেরআলীর চরে অবস্থিত র‌্যাব-৮ এর অস্থায়ী ক্যাম্পের সদস্যরা সাগর থেকে জেলেদের উদ্ধার করে ক্যাম্পে এনে তাদের চিকিৎসা সেবা ও খাবারের ব্যবস্থা করে সুস্থ করে তোলে। এছাড়া তাদেরকে নিজ নিজ এলাকায় পাঠানোর ব্যবস্থাও করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, নিখোঁজ জেলে ও ডুবে যাওয়া ট্রলার উদ্ধারে র‌্যাব সদস্যরা তাদের অভিযান অব্যাহত রেখেছে। তবে তার জানা মতে চরদুয়ানীর নুর ইসলামের ট্রলারের ৩ জেলে এখনও নিখোঁজ রয়েছে।

এদিকে শরণখোলার খোন্তাকাটা গ্রামের নিখোঁজ জেলে পরিবারের স্বজনরা ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, এফ,বি মায়ের দোয়া নামের মাছ ধরার ট্রলার ডুবে ১৩ জেলে গত ৩দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে। গত ২দিনে সাগরে বহু ট্রলার ডুবে গেছে। তবে নিখোঁজের সংখ্যাও কেউ জানাতে পারেনি।

ওয়াজ কুরুনীস্বদেশের খবর
বঙ্গোপসাগরে ঝড়ের কবলে পড়ে ট্রলার ডুবির ঘটনায় নিখোঁজ ১০৩ জন জেলেকে পৃথক অভিযানে সাগরে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করেছে নৌ বাহিনী, কোস্ট গার্ড ও র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা। রবিবার ট্রলার ডুবির ঘটনার পর ঐ জেলেরা সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত হিরণ পয়েন্ট, ফেয়ারওয়ে বয়া ও দুবলার চর সংলগ্ন সাগরে ভাসমান অবস্থায় ছিলেন। কোস্ট গার্ড জানায়,...