1440423514
বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান বলেছেন, জনগণই সব ক্ষমতার উত্স হলেও বর্তমানে সব ক্ষমতার উত্স হচ্ছে র‍্যাব, পুলিশ ও সরকারি আমলারা। আওয়ামী লীগ তাদের সহযোগী হিসেবে কাজ করছে।

সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে আয়োজিত ‘বাক স্বাধীনতা, নাগরিক নিরাপত্তা ও গণতন্ত্র বাঁচাতে পেশাজীবী-রাজনীতিবিদ-সমাজকর্মীদের ভূমিকা’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। কমল একাডেমি আলোচনা সভাটির আয়োজন করে। আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, দেশে এই মুহূর্তে আইনের শাসনের অনুপস্থিত, ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মী ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনী অরাজকতা সৃষ্টি করেছে। এই পরিস্থিতির উত্তরণ ঘটাতে হলে একটি অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের কোন বিকল্প নেই। তিনি বলেন, সমগ্র জাতি এই সরকারকে ঘৃণা করে। কিন্তু গুম হত্যার ভয়ে কেউ মুখে কিছু বলছে না।

তিনি আরো বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে কর্নেল তাহের ও ইনুরা সশস্ত্র বিপ্লবের মাধ্যমে আওয়ামী লীগকে হটিয়ে ক্ষমতা দখল করতে চেয়েছিল। আজ তারাই বড় আওয়ামী লীগার। শেখ হাসিনা একটি কথা বললে ইনু আগ বাড়িয়ে আরো দুটি কথা বলেন।

জিয়াউর রহমানের স্বাধীনতার ঘোষণা প্রসঙ্গে বিএনপির এই নেতা বলেন, তিনি সুপ্রিম লিডার নাকি পাঠক হিসেবে স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন আমি সেই বিতর্কে যেতে চাই না। তবে জাতির সেই ক্রান্তিলগ্নে তিনি যদি স্বাধীনতার ঘোষণা না দিতেন তাহলে মুক্তিযুদ্ধ ব্যর্থতায় পর্যবসিত হতো। আয়োজক সংগঠনের চেয়ারম্যান মাইনুল আহসান মুন্নায় সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নুরুল আমিন বেপারী, যুবদলের সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, নারী নেত্রী রাশেদা বেগম হীরা, ব্যারিস্টার সরোয়ার হোসেন

নৃপেন পোদ্দারজাতীয়
বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান বলেছেন, জনগণই সব ক্ষমতার উত্স হলেও বর্তমানে সব ক্ষমতার উত্স হচ্ছে র‍্যাব, পুলিশ ও সরকারি আমলারা। আওয়ামী লীগ তাদের সহযোগী হিসেবে কাজ করছে। সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে আয়োজিত 'বাক স্বাধীনতা, নাগরিক নিরাপত্তা ও গণতন্ত্র বাঁচাতে পেশাজীবী-রাজনীতিবিদ-সমাজকর্মীদের ভূমিকা' শীর্ষক...