5287298c7f80f-ershad
মাগুরায় ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের সময় নিজের ঘরের বারান্দায় মা ও পেটের শিশু গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় সরকারের জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গুলিবিদ্ধ মা নাজমা বেগম ও শিশু সুরাইয়াকে দেখতে গিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।
এরশাদ বলেন, ‘মায়ের পেটে শিশু হত্যা চেষ্টায় যাঁরা দায়ী তাঁদের বিচার হওয়া উচিত। কিন্তু তাঁদের বিচার হবে কি-না জানি না। তবে সরকারের উচিত এ ঘটনার জন্য জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া।’
সরকারের কাছে প্রশ্ন রেখে এরশাদ বলেন, ‘কেন এই ঘটনা ঘটছে, মাদকাসক্তি না কি বিচারহীনতা? কারণ যাই হোক, যাঁরা এই ঘটনা ঘটিয়েছেন তাঁরা জানেন, তাঁদের বিচার হবে না।’
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান আরও বলেন, ‘মায়ের পেটের শিশুও নিরাপদ নয়, এটা আমরা ভাবতেও পারি না। আমরা কত বর্বর হয়ে গেছি। আমরা এখন আর মননশীল জাতি নই। এই সমাজের পরিবর্তন দরকার। ইনশা আল্লাহ পরিবর্তন আসবে।’
এরশাদ আরও বলেন, ‘এখন অভিনব পন্থায় শিশুদের ওপর বর্বর নির্যাতন হচ্ছে। এই অভিনব পন্থা কীভাবে এল? কত বর্বর মানুষ। মানুষ কীভাবে বাঁচবে, বাংলাদেশ কীভাবে বাঁচবে? যাঁরা এই ঘটনা ঘটিয়েছেন তাঁদের কঠোর শাস্তি দিন, ফাঁসি দিন। যাতে এমন নিষ্ঠুর ঘটনা আর কেউ ঘটাতে না পারে।’
হাসপাতালে এরশাদের সঙ্গে ছিলেন দলের মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন, মীর আব্দুস সবুর আসুদ, যুগ্ম মহাসচিব রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া প্রমুখ।

নৃপেন পোদ্দারজাতীয়
মাগুরায় ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের সময় নিজের ঘরের বারান্দায় মা ও পেটের শিশু গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় সরকারের জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গুলিবিদ্ধ মা নাজমা বেগম ও শিশু সুরাইয়াকে দেখতে গিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা...