93963_x1
ঈদুল-আজহার জামাতের জন্য প্রস্তুত শোলাকিয়া। দেশের বৃহত্তম এই ঈদগাহে সকাল ৯টায় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। জামাতে ইমামতি করবেন মাওলানা হিফজুর রহমান খান। ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ময়দানের ঈদ জামাতে দূর-দূরান্তের মুসল্লিদের অংশগ্রহণের সুবিধার্থে প্রতিবারের ন্যায় এবারও ঈদের দিন বাংলাদেশ রেলওয়ে ২টি বিশেষ ট্রেন পরিচালনা করবে। এ ছাড়া সুষ্ঠুভাবে জামাত অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে নেয়া হয়েছে ব্যাপক নিরাপত্তা পরিকল্পনা। ঐতিহ্যবাহী এ ঈদ জামাত আয়োজনকে ঘিরে উৎসবের আমেজ ছড়িয়ে পড়েছে কিশোরগঞ্জের সর্বস্তরের লোকজনের মাঝে। শোলাকিয়ার বৃহত্তম জামাতে ঈদের নামাজ আদায়ের জন্য প্রতিবারই জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে মুসল্লিগণ ছুটে আসেন। তবে কোরবানির ব্যস্ততার কারণে ঈদুল-আজহার জামাতে ঈদুল-ফিতরের তুলনায় মুসল্লির সংখ্যা অনেক কম হয়ে থাকে। এখানকার ঈদ জামাতে এ ধরনের অসংখ্য লোকের খোঁজ পাওয়া যায়, যারা দীর্ঘদিন ধরে শোলাকিয়ায় নিয়মিত নামাজ আদায় করে আসছেন। সাধারণ মানুষ ছাড়াও প্রতিবারই এ জামাতে বিপুল সংখ্যক বিদেশী মুসল্লি উপস্থিত থাকেন। দেশ-বিদেশের অসংখ্য মানুষের অংশগ্রহণে ঈদ উৎসবের বিশ্বমৈত্রীর বাস্তব চিত্র দেখতে পাওয়া যায় এই ঈদ জামাতে। এবার এ মাঠে ঈদুল-আজহার ১৮৮তম জামাত অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠ পরিচালনা কমিটি এরই মধ্যে জামাত আয়োজনে তাদের গৃহীত বিভিন্ন প্রস্তুতিমূলক কর্মকাণ্ড শেষ করে এনেছে।
২৫শে সেপ্টেম্বর শুক্রবার ঈদুল-আজহার দিন দূর-দূরান্ত থেকে আসা মুসল্লিদের সুবিধার্থে বাংলাদেশ রেলওয়ে ‘শোলাকিয়া ঈদ স্পেশাল’ নামে ২টি বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করেছে। বিশেষ ট্রেনের একটি ঈদের দিন সকাল ৬টায় ভৈরববাজার থেকে কিশোরগঞ্জের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসবে এবং সকাল ৮টায় কিশোরগঞ্জ পৌঁছবে। জামাত শেষে ট্রেনটি বেলা ১২টায় পুনরায় ভৈরববাজারের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে। অপর ট্রেনটি ঈদের দিন সকাল পৌনে ৬টায় ময়মনসিংহ থেকে কিশোরগঞ্জের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসবে এবং সকাল সাড়ে ৮টায় কিশোরগঞ্জ পৌঁছবে। এ ট্রেনটিও জামাত শেষে বেলা ১২টায় কিশোরগঞ্জ থেকে ময়মনসিংহের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে।
১৮২৮ সালে জেলা শহরের পূর্বপ্রান্তে নরসুন্দা নদীর তীরে প্রায় ৭ একর জমির উপর এ মাঠের গোড়াপত্তন হয়। ওই বছর স্থানীয় সাহেব বাড়ির ঊর্ধ্বতন পুরুষ সৈয়দ আহমদ (র.) এর ইমামতিতে ঈদের প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়। সে ঈদের জামাতে মুসল্লির সংখ্যা দাঁড়িয়েছিল ১ লাখ ২৫ হাজার অর্থাৎ সোয়া লাখ। এই সোয়া লাখ থেকেই উচ্চারণ বিবর্তনে বর্তমান শোলাকিয়া নামকরণ হয়েছে। অপর একটি ধারণা হচেয়, মোগল আমলে এখানে পরগনার রাজস্ব আদায়ের একটি অফিস ছিল। সেই অফিসের অধীন পরগনার রাজস্বের পরিমাণ ছিল সোয়া লাখ টাকা। এটাও ‘শোলাকিয়া’ নামকরণের উৎস হতে পারে।
শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানের মূল প্রবেশদ্বারে ইতিহাসের নীরব সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে আছে ঈদগাহের সমবয়সী একটি রেইনট্রি গাছ। বয়োজ্যেষ্ঠ মুসল্লিরা ঈদের দিন প্রত্যুষে ঈদগাহে চলে আসেন গাছটির নিচে আগেভাগে জায়গা নিতে। শোলাকিয়ার ঈদ জামাতে শরিক হওয়া অনেকেই কৌতূহলভরে গাছটিকে এক নজর দেখে যান।
কথিত রয়েছে, এ গাছের কেউ একটি ডাল ভাঙলেও সে অসুস্থ হয়ে পড়ে। ফলে এ গাছ নিজে থেকে তার কোন অংশ না খোয়ালে কেউ ছুঁতে সাহস পান না। এভাবেই প্রায় আড়াইশ’ বছর ধরে এটি কালের সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে আছে।
কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসক জিএসএম জাফরউল্লাহ্‌ ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, ঈদ জামাতকে নির্বিঘ্ন ও শান্তিপূর্ণ করতে সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। বরাবরের ন্যায় এবারো উৎসবমুখর পরিবেশে সুন্দর ও সুচারুভাবে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

নৃপেন পোদ্দারএক্সক্লুসিভ
ঈদুল-আজহার জামাতের জন্য প্রস্তুত শোলাকিয়া। দেশের বৃহত্তম এই ঈদগাহে সকাল ৯টায় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। জামাতে ইমামতি করবেন মাওলানা হিফজুর রহমান খান। ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ময়দানের ঈদ জামাতে দূর-দূরান্তের মুসল্লিদের অংশগ্রহণের সুবিধার্থে প্রতিবারের ন্যায় এবারও ঈদের দিন বাংলাদেশ রেলওয়ে ২টি বিশেষ ট্রেন পরিচালনা করবে। এ ছাড়া সুষ্ঠুভাবে জামাত অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে...