jhenidah photo-1_107516
ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার কাঁচেরকোল গ্রামে নেহেদ আলী মালিথা (৩৫) নামে এক ভ্যানচালককে শ্বাসরোধে হত্যা করে তার অটোভ্যানটি ছিনতাই করে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।

নেহেদ মালিথা কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার কেষ্টপুর গ্রামের আসালত মালিথার ছেলে।
শনিবার সকাল ৯টার দিকে পুলিশ খবর পেয়ে কাঁচেরকোল গ্রামের মাঠ থেকে তার হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার করেছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে শৈলকুপা থানায় একটি মামলা হয়েছে।

শৈলকুপা থানার ওসি এমএ হাসেম খাঁন ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, বিকালের দিকে নেহেদ মালিথা কুমারখালী বাজার থেকে যাত্রী নিয়ে শৈলকুপায় আসে। এরপর থেকে সে নিখোঁজ ছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে যাত্রীবেশি দুর্বৃত্তরা তাকে গামছা পেচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করে নতুন অটোভ্যানটি নিয়ে গেছে। লাশের পাশে তিন জোড়া স্যান্ডেল ও বেশ কিছু টাকা পাওয়া গেছে। অটোভ্যান ছিনতাই করার জন্যই তাকে হত্যা করা হয়েছে।

নিহতের ছেলে বাপ্পি মালিথা ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, শুক্রবার তার পিতা এনজিও থেকে ৩৫ হাজার টাকা লোন নিয়ে নতুন একটি অটোভ্যান কিনে ভাড়া খাটতে বের হন। সন্ধ্যার পর থেকে তার কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। শনিবার সকালে শৈলকুপার কাঁচোরকোল গ্রামের মাঠে তার পিতার হাত-পা বাঁধা লাশ পাওয়া যায়।

সুরুজ বাঙালীপ্রথম পাতা
ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার কাঁচেরকোল গ্রামে নেহেদ আলী মালিথা (৩৫) নামে এক ভ্যানচালককে শ্বাসরোধে হত্যা করে তার অটোভ্যানটি ছিনতাই করে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। নেহেদ মালিথা কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার কেষ্টপুর গ্রামের আসালত মালিথার ছেলে। শনিবার সকাল ৯টার দিকে পুলিশ খবর পেয়ে কাঁচেরকোল গ্রামের মাঠ থেকে তার হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার করেছে। লাশ...