জীবননগর (চুয়াডাঙ্গা) সংবাদদাতা ।
চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ৬ পুলিশ সদস্যকে শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে ক্লোজড করা হয়েছে। তাদের মধ্যে পাঁচজন সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) রয়েছেন।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।
বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে তাদের থানা থেকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের না জানিয়ে সাদা পোশাকে অন্য থানা এলাকাতে অভিযান চালানোর অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে এমন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

প্রত্যাহার হওয়া পুলিশ সদস্যরা হলেন, উপ-পরিদর্শক মো, কামরুজ্জামান, ইন্দ্রজিৎ সরকার, রমেন দাস, কামরুল হোসেন, ইউসুফ আলী ও কনস্টেবল জসিম উদ্দীন। বিষয়টি ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে নিশ্চিত করে পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান জানিয়েছেন, প্রকৃত ঘটনা অনুসন্ধানের জন্য অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. তরিকুল ইসলামকে প্রধান করে দুই সদস্যর একটি কমিটি করা হয়েছে।

এদিকে তদন্ত কমিটির প্রধান মো. তরিকুল ইসলাম এবং সদস্য অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. কলিমুল্লা শুক্রবার বেলা ১২টার সময় ঘটনাস্থলে গিয়ে এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে তদন্ত কাজ শেষ করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সহকারী পুলিশ সুপার আহসান হাবিব, জীবননগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মাহবুব রহমান, ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ।

পুলিশ এবং গ্রামবাসী সূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওই পাঁচ পুলিশ সদস্য বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সাদা পোশাকে জীবননগর উপজেলার সিংনগর গ্রামে অভিযান চালায় এবং তিন বোতল ফেনসিডিলসহ চিহ্নিত মাদকব্যবসায়ী ওই গ্রামের পলাশকে গ্রেফতার করেন। এসময় পলাশের সহযোগীরা পুলিশের সাথে ধস্তাধস্তি করে তাকে ছাড়িয়ে নেন। পরে তারা পুলিশের উপর হামলা করেন এবং পুলিশ সদস্যদের একপ্রকার বন্দি করে রাখেন। খবর পেয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশ এবং জীবননগর থানা থেকে পুলিশ এসে ওই ৬ পুলিশকে উদ্ধার করেন। বিষয়টি জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অবহিত হলে রাতে অভিযুক্তদের সদর থানা থেকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে নেন।

সদর থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন খান ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে জানান, সদর উপজেলার আকুন্দবাড়িয়া ও সিংনগর গ্রাম একেবারে লাগোয়া হওয়ায় ভুল করে ওই পুলিশ সদস্যরা জীবননগর থানা এলাকার ভেতরে ঢুকে পড়ে।

পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান জানান, সাদা পোশাকে অভিযান না চালানোর ব্যাপারে এমনিতেই নির্দেশনা রয়েছে। তাছাড়া ওই ৬ পুলিশ সদস্য কোনো ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে না জানিয়ে পার্শ্ববর্তী থানা এলাকাতে অভিযান চালায়। যা পুলিশ বাহিনীর শৃঙ্খলা পরিপন্থী। এ কারণে তাদের বিরুদ্ধে এই শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/03/130.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/03/130-300x300.jpgশিশির সমরাটএক্সক্লুসিভ
জীবননগর (চুয়াডাঙ্গা) সংবাদদাতা । চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ৬ পুলিশ সদস্যকে শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে ক্লোজড করা হয়েছে। তাদের মধ্যে পাঁচজন সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) রয়েছেন। খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে তাদের থানা থেকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের না জানিয়ে সাদা পোশাকে অন্য...