image_264706.inu999
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, শিশুর নিরাপত্তা ও নারীর সম্মান বজায় রাখার লক্ষ্যেই সাইবারক্রাইম দমন করা দরকার।
তিনি শুক্রবার সকালে গাজীপুরের বোর্ড বাজারস্থ ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজি’র সপ্তম জাতীয় ফেস্ট’১৫ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।
অপর এক প্রশ্নের জবাবে হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘দেশের সর্বস্তরের মানুষের অর্থনৈতিক,সামাজিক,রাজনৈতিক ও গণতান্ত্রিক অধিকার রক্ষা করার পাশাপাশি ইন্টারনেটকে বাংলাদেশের সকল মানুষের মাঝে পৌঁছে দেয়া এবং বাংলা ভাষাকে পৃথিবীর সর্বস্তরে ছড়িয়ে দেয়া গেলেই আমাদেও সোনালী ভবিষ্যত গড়ে তোলা সম্ভব।’
এরআগে বক্তৃতায় তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার দেশের উন্নয়নে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলতে তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তির মাধ্যমে নতুন সমাজ, নতুন যুগ গঠনের সূচনা করেন।
ইসলামিক ইউনির্ভাসিটি অফ টেকনোলজির ভাইস চ্যান্সেলর ড. ইমতিয়াজ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় তথ্যমন্ত্রী বলেন, তথ্য ও প্রযুক্তির যুগে বর্তমান প্রজন্মকে দক্ষ করে তুলতে আইইউটি-২০০৮ সালে সারাদেশের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে প্রথম বারের মতো ন্যাশনাল আইসিটি ফেস্ট আয়োজন করে, যার উদ্দেশ্য ছিল বিভিন্ন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে সকলের মাঝে আইটি ক্ষেত্রে উৎসাহ দেয়া এবং শিক্ষার্থীদের সার্বিক উন্নতি সাধন করা।
তিনি বলেন, ‘আমি এ বিশ্ববিদ্যালয়ে এর আগে অনেক বার এসেছি এবং প্রতিবারই এরকম পুলকিত বোধ করি। যেই বাবা-মায়ের জন্যে তোমরা দুনিয়াতে এসেছো এবং যেই শিক্ষকদের কারণে সফল জীবনযাপন করছো, তাদের অবদান কখনো অস্বীকার করবে না।’
অনুষ্ঠানে মডারেটরের দায়িত্ব পালন করেন আবু রায়হান মোস্তফা কামাল। অন্যান্যের মধ্যে আইইউটি’র কম্পিউটার সোসাইটির চীফ প্যাট্রন প্রফেসর ড. মোঃ আব্দুল মোতালেব অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।
এবছর সারাদেশ থেকে বিভিন্ন বিষয়ে মোট ১৭৬০জন প্রতিযোগী আইসিটি ফেস্ট-এ অংশগ্রহণ করছেন।

শুভ সমরাটজাতীয়
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, শিশুর নিরাপত্তা ও নারীর সম্মান বজায় রাখার লক্ষ্যেই সাইবারক্রাইম দমন করা দরকার। তিনি শুক্রবার সকালে গাজীপুরের বোর্ড বাজারস্থ ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজি’র সপ্তম জাতীয় ফেস্ট’১৫ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন। অপর এক প্রশ্নের জবাবে হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘দেশের...