33
বিনোদন প্রতিবেদক |
আবারও শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস জুটিতে অবিশ্বাসের দানা মাথাচাড়া দিয়ে উঠল। নির্মাণাধীন দুটি ছবি থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন তো বটেই, সব ধরনের মিডিয়া থেকেও নিজেকে আড়াল করে রেখেছেন অপু বিশ্বাস।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

ছেড়ে দেয়া দুটি ছবিতেই তার বিপরীতে নায়ক ছিলেন শাকিব খান। অভিমান, নাকি প্রতিবাদ- এমন প্রশ্নের উত্তরের জন্যও অপুকে এখন খুঁজে পাওয়া মুশকিল।

সদ্য সমাপ্ত জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অনুষ্ঠানে তাকে দাওয়াত পর্যন্ত দেয়া হয়নি। এটাও কী একটা রাজনীতি?

অপু বিশ্বাসের সঙ্গে রাজনীতির শুরুটা কিন্তু এবারই প্রথম নয়। কিংবা শাকিব খানের সঙ্গে বিরোধ বা অভিমানও হয়েছে একাধিকবার।

২০১০ সালে একবার শাকিব খান আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দিয়েছিলেন, হাতে থাকা ছবির কাজ শেষ করার পর অপু বিশ্বাসের সঙ্গে আর কোনো ছবিতে অভিনয় করবেন না। সেসময় শাকিবের এমন ঘোষণায় আঁৎকে উঠেছিলেন অনেকে। কারণ, ওই সময়ের হিট জুটি ছিল শাকিব-অপু। এ ঘোষণার পরের দিনই ‘জান কুরবান’ ছবির শুটিং ছিল। ছবির নায়ক-নায়িকা শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস দু’জনই সময়মতো শুটিংয়ে এসেছেন। কাজও করেছেন। কিন্তু শুটিংয়ে সংলাপের প্রয়োজনটুকু ছাড়া একে অন্যের মুখ দেখাদেখি বন্ধ ছিল।

শুধু তাই নয়, শাকিব খান একটিবারের জন্যও অপু বিশ্বাসের চোখ বা মুখের দিকে তাকিয়ে সংলাপ বলেননি। রোমান্টিক দৃশ্যগুলোর অবস্থা ছিল আরও যাচ্ছেতাই। শাকিবকে এসব দৃশ্যের রোমান্স বিন্দুমাত্রও স্পর্শ করেনি। সে সময় পরিচালক শাকিবের কাজে মোটেও সন্তুষ্ট হতে পারেননি। কিন্তু কিছু বলার উপায়ও ছিল না।
নায়ক-নায়িকার মধ্যে সমঝোতা বা সম্পর্ক না থাকলে ভালো কাজ কখনই দাঁড়াবে না, এটাই স্বাভাবিক। ইন্ডাস্ট্রির দু-একজন তখন তাদের মধ্যে সম্পর্ক জোড়া লাগানোর চেষ্টা করলেও ফলাফল ছিল শূন্য। ফলে কেউ আর জোর করে আর শাকিব-অপুর সম্পর্কে জোড়া দিতে আগ্রহী হননি।

এরপর শাকিব খান নতুন নায়িকা কিংবা অন্য নায়িকাদের সঙ্গে অভিনয় করেছেন। কিন্তু শাকিবের বদলে যাওয়ার কারণে অপু হয়ে গেল ছবি শূন্য। অনেকটা অভিমানে ইন্ডাস্ট্রি থেকে নিজেকে গুটিয়েও নিয়েছিলেন।

তখন শাকিব খান আর অপু বিশ্বাসের মতো সফল জুটির হঠাৎ ভাঙনে সিনেমা শিল্পে নতুন সংকট তৈরির আভাসও দিয়েছিলেন অনেকে। এমনিতেই ঢালিউডে বাজার কাটতি শিল্পীর বড়ই অভাব। এরমধ্যে একটি সফল জুটি যদি ভেঙে যায় তাহলে চলচ্চিত্র শিল্পের অবস্থা যে নিুমুখী হবে সেটাই স্বাভাবিক। যদিও সময় কারও জন্য থেমে থাকে না। শাকিব খান কিন্তু অন্য নায়িকাদের নিয়ে নিয়মিত কাজ করে গেছেন। এর মধ্যে অবশ্য বেশিরভাগ ছবিই ফ্লপ হয়েছে। কিছু ছবি সফল ছিল।

অনেকেই বলেছেন এটা ছিল শাকিবের একটা পরীক্ষামূলক আচরণ। অপু ছাড়া কতটা হিট তিনি সেটাই যাচাই করেছেন। পরীক্ষার বৈতরনী পার হয়ে গেলেও অপুকে তার দরকার ছিল। সেটা মুখে স্বীকার না করলেও অন্তরে অনুভব করতেন।

যদিও সিনেমাবোদ্ধাদের মত ছিল, অপু বিশ্বাসকে গুরুত্ব দিতে গিয়ে শাকিব খান অন্য কোনো নায়িকাকে প্রাধান্য দেননি। নতুন কোনো নায়িকাকে প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টাও করেননি। এবার নিজ গণ্ডি থেকে বের হয়ে ভিন্ন ভিন্ন এমনকি নতুনদের সঙ্গেও কাজ করবেন।

২০১০ সালের পর প্রায় দুই বছর ইন্ডাস্ট্রি থেকে একেবারেই আড়ালে ছিলেন অপু। এসময়টা তাকে কেউ খুঁজে পায়নি। কিংবা খোঁজার চেষ্টাও করেনি। অভিমানী অপু নিজেও কারও কাছে যেচে পড়ে কাজ পাওয়ার চেষ্টা করেননি। বরং এ সময় নিজেকে বোঝার চেষ্টা করেছেন। নতুনভাবে তৈরি করার চেষ্টা করেছেন। শাকিব খানের সঙ্গে একসঙ্গে অনেক ছবিতে অভিনয় করার কারণে নিজের প্রতি খেয়ালও রাখতে পারেননি। কিছুটা মুটিয়েও গিয়েছিলেন। শেষের দিকে এসে ছবি প্রত্যাশার অনুযায়ী ব্যবসাও করতে পারছিল না। অনেকে এটাকে ‘একঘেয়েমি’ হিসেবে বলেছেন। সবকিছু থেকে নিজেকে মুক্ত করতে শাকিবের ‘ছেড়ে’ দেয়ার ঘোষণাটা তাকে কষ্ট দিলেও নিজেকে নিয়ে ভাবার সময় পাওয়ার জন্য কিছুটা স্বস্তিতেও ছিলেন অপু। মুক্ত সময়ে নিজেকে নতুনভাবে তৈরি করেছেন। নিয়মিত জিম করেছেন।

নিজেকে আমূল বদলে নিয়ে ২০১৩ সালের শুরুর দিকে আবারও ফিরলেন ইন্ডাস্ট্রিতে। ততদিনে শাকিব খানের মনের বরফও গলতে শুরু করেছিল। অন্য নায়িকাদের সঙ্গে সফলতার পাল্লাটা নিম্নমুখী দেখে নিজের প্রযোজিত প্রথম ছবি ‘হিরো : দ্য সুপারস্টার’-এ নায়িকা হিসেবে অপুকেই কাস্ট করেন। এ ছবি দিয়ে আবারও অপুর প্রত্যাবর্তন ঘটে ইন্ডাস্ট্রিতে।

ফিরতি যাত্রায় অপুকে দেখে অনেকে চিনতেও ভুল করেছেন। এ কোন অপু! একেবারে স্লিম ফিগারের গ্ল্যামারাস অন্য এক মেয়ে যেন! আবারও ফিরলেন অপু। সেই শাকিবের হাত ধরেই। ফিরতি যাত্রায় আবারও শাকিব-অপু জুটি হিট। এরপর আবারও পূর্বের নিয়মে পথচলা। জুটি বেঁধেই বেশ কয়েকটি ছবিতে অভিনয়। তবে আগের মতো গড্ডালিকায় গা ভাসাতে চাচ্ছিলেন না অপু। আবারও কারও নিয়ন্ত্রণে থাকার বিষয়টিও তাকে ভাবিয়েছে দুটি বছর। তাই নিজের মতো করেই কাজ করতে চাচ্ছিলেন।

কিন্তু চলচ্চিত্রের ‘নোংরা রাজনীতি’র কাছে যেন টিকে থাকাটা তার পক্ষে মুশকিল হয়ে দাঁড়িয়েছে। ফিরতি যাত্রায় দুই বছর শান্তিতে কাজ করার পর তৃতীয় বছর এসে আবারও পুরনো হতাশা তাকে ঘিরে ধরেছে। শাকিবও যেন পূর্বের মতো আচরণ শুরু করলেন। যদিও শাকিবের এ ধরনের আচরণের সঙ্গে আগে থেকেই পরিচিত, তাই কষ্টের পরিমাণটা আগের মতো পাহাড় না হয়ে উঁচু ঢিবিতেই সীমাবদ্ধ থাকল। কিন্তু নিজের আত্মসম্মান বিলিয়ে দিতে রাজি নন। তাই ইন্ডাস্ট্রি থেকে নিজেকে গুটিয়ে নেয়ার ভাবনা ভর করে তার মননে।

গেল দুই মাস ধরে অপুকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। ঘটনা সত্যি। অপু নিজ থেকেই সবার সঙ্গে যোগাযোগ কমিয়ে দিয়েছেন। এরই মধ্যে দুটি ছবি থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। যে দুটি ছবিতে তার নায়ক ছিল শাকিব খান। এর মধ্যে একটি ছবি ছিল বিতর্কিত প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়ার।

অপু আগেই ঘোষণা দিয়েছিলেন জাজ এবং যৌথ প্রযোজনার কোনো ছবিতে তিনি অভিনয় করবেন না। তাই যখনই জানতে পারলেন তার চুক্তিবদ্ধ ‘বসগিরি’ ছবিটির বেশিরভাগ অর্থায়ন জাজের তখনই নিজেকে ওই ছবি থেকে গুটিয়ে নিলেন।

অবশ্য এ দুটি ছবি ছেড়ে দেয়ার পেছনে অভিমানও কাজ করেছে। শাকিব খান ‘শিকারী’ নামের যৌথ প্রযোজনার একটি ছবিতে অভিনয়ের জন্য কলকাতায় গিয়ে প্রায় একমাস সময় ব্যয় করেছেন। অন্যদিকে ঢাকার ছবিগুলোর নির্মাতারা ছিল অসহায়। এ অভিমানটা অপুকেও গ্রাস করেছিল। সেই কারণেও হয়তো ছবি দুটি ছেড়ে দিতে পারেন। তবে ছবি ছেড়ে দেয়ার পেছনের কারণ হিসেবে নিজের ফিটনেসের কথা বলে খোঁড়া যুক্তি দেখিয়েছেন তিনি।

একথা বলতে দ্বিধা নেই যে, শাকিব খান আর অপু বিশ্বাসের উত্থান মূলত একসঙ্গেই শুরু হয়। কিন্তু একটা পর্যায়ে এসে শাকিব খান অপু বিশ্বাসকে ছাড়া বেশ কয়েকটি ব্যবসাসফল ছবি উপহার দেন।

কিন্তু অপু বিশ্বাস এই নায়ক ছাড়া অন্য কোনো নায়ককে নিয়ে সফল হতে পারেননি। যে কারণে নির্মাতারা শাকিব খান ছাড়া অপুকে কোনো ছবিতে নিতেও অপারগতা প্রকাশ করেন। এর মধ্যে একক নায়ক হিসেবে ইন্ডাস্ট্রিতে দাঁড়িয়ে গেলে শাকিব খানও আর অপুকে নিয়ে ভাবতে রাজি নন। যার ফলাফল দেখা গেছে গত পাঁচ বছরে। অপু আসে, অপু যায়। এভাবেই চলছে অপুর ক্যারিয়ার। স্বভাবতই প্রশ্ন জাগে, ফিরতি যাত্রায়ও কী অপু-শাকিবের সম্পর্কে ভাটা পড়েছে। ভেঙে যাচ্ছে এ জুটি?
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2016/05/3321.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2016/05/3321-300x300.jpgহাসন রাজাবিনোদন
বিনোদন প্রতিবেদক | আবারও শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস জুটিতে অবিশ্বাসের দানা মাথাচাড়া দিয়ে উঠল। নির্মাণাধীন দুটি ছবি থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন তো বটেই, সব ধরনের মিডিয়া থেকেও নিজেকে আড়াল করে রেখেছেন অপু বিশ্বাস।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। ছেড়ে দেয়া দুটি ছবিতেই তার বিপরীতে নায়ক ছিলেন শাকিব খান। অভিমান, নাকি...