image_264692.suronjit sen
সাবেক মন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকীর পদত্যাগে সংসদ সদস্যপদ বাতিল হয়নি বলে মনে করেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।
তিনি বলেন, আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর সংসদ সদস্যপদ বাতিল হয়নি। কারণ সংবিধান অনুযায়ী দুটি কারণে যেকোনো সংসদ সদস্যের সদস্যপদ বাতিল হয়। যার কোনোটিই লতিফ সিদ্দিকীর ক্ষেত্রে ঘটেনি।
সংসদ সদস্যপদ বাতিল হওয়ার জন্য যে দুটি কারণ থাকে তার একটি হলো দলের বিরুদ্ধে সংসদে ভোট দেওয়া। অপরটি হলো যে দল থেকে ওই সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন সেই দল থেকে পদত্যাগ করলে। কিন্তু তিনি কোনোটিই করেননি। তাই বুঝতে হবে, তার সদস্যপদ আছে। আর মনে রাখতে হবে দল সংসদ সদস্য প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেয়। কিন্তু নির্বাচিত করে সংসদীয় এলাকার জনগণ। তাই দল থেকে বহিষ্কার করা হলেও তিনি স্বতন্ত্র সদস্য হিসেবে সংসদে সংসদীয় এলাকার জনগণের প্রতিনিধিত্ব করতে পারবেন।
শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর ইনস্টিটিউট অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্সে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, লতিফ সিদ্দিকীর বিষয়টি যেভাবে সমাপ্ত হয়েছে তা মোটেই সাংবিধানিক ও গণতান্ত্রিক উপায়ে হয়নি। স্পিকার বিষয়টির সমাধানের জন্য নির্বাচন কমিশনে পাঠালেন। কিন্তু কমিশন তা আবার সংসদে পাঠালো। এই অধিকার সংবিধান তাকে দেয়নি।
এর আগে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত ও মন্ত্রিত্ব হারানো আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর সংসদ সদস্যপদ থেকে করা পদত্যাগপত্র গৃহীত হয়েছে। বৃহস্পতিবার প্রশ্নোত্তর পর্ব শেষে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর আসন শূন্য করার বিষয়টি ঘোষণা করেন।
গত মঙ্গলবার লতিফ সিদ্দিকী সংসদে উপস্থিত হয়ে স্পিকারের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন। এখন নিয়ম অনুযায়ী ওই আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

অর্ণব ভট্টজাতীয়
সাবেক মন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকীর পদত্যাগে সংসদ সদস্যপদ বাতিল হয়নি বলে মনে করেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। তিনি বলেন, আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর সংসদ সদস্যপদ বাতিল হয়নি। কারণ সংবিধান অনুযায়ী দুটি কারণে যেকোনো সংসদ সদস্যের সদস্যপদ বাতিল হয়। যার কোনোটিই লতিফ সিদ্দিকীর ক্ষেত্রে ঘটেনি। সংসদ সদস্যপদ বাতিল হওয়ার জন্য যে...