dollar_pic_336826
কিছু দিন পর পর রেকর্ড গড়ছে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ। সর্বশেষ হিসাবে যা ছাড়িয়ে গেছে দুই হাজার ছয়শ’ কোটি ডলার। এ অবস্থার পরও দেশে নগদ ডলারের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে।
পরিস্থিতি সামাল দিতে জরুরি ভিত্তিতে কাগুজে ডলার আমদানির উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। আর এজন্য ডলার আমদানিতে শুল্কমুক্ত সুবিধা চেয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের কাছে চিঠি দেয়া হয়েছে।
নগদ ডলার সংকটের মূল কারণ হিসেবে ব্যাংকাররা বলছেন, ব্যাংকগুলোর সমন্বয়হীন দর নির্ধারণ ও মুদ্রা পাচার।
এছাড়া শিক্ষা, চিকিৎসা, ব্যবসাসহ নানা কাজে বিদেশগামী মানুষের সংখ্যা দিনদিন বাড়ছে। সেই সঙ্গে বাড়ছে বৈদেশিক মুদ্রা বিশেষ করে ডলারের চাহিদা।
কিন্তু ডলারের পরিমাণ কমে যাওয়ায় এই চাহিদা মেটাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে ব্যাংকগুলোকে। বাংলাদেশ ব্যাংকের ভল্টে থাকা ডলার দিয়েও সেই চাহিদা মেটানো যাচ্ছে না।
এ অবস্থায় জরুরিভিত্তিতে ডলার নোট আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পর্ষদ। সম্প্রতি জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে পাঠানো এক চিঠিতে এজন্য শুল্ক আরোপ না করার অনুরোধ জানানো হয়েছে।
ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, দেশের বাজারে নগদ বৈদেশিক মুদ্রার যোগান অনেক কমে গেছে। তাই বাড়ছে ডলারের দাম।
কেন্দ্রীয় ব্যাংক এর আগেও ডলার আমদানির উদ্যোগ নিয়েছিল। বিদেশী একটি ব্যাংক আমদানি প্রক্রিয়া প্রায় চূড়ান্ত করেও অতি উচ্চ শুল্কের কারণে পিছু হটে। তারপর থেকে আর কোনো উদ্যোগ নেয়া হয়নি। এ কারণেই এই সংকট সৃষ্টি হয়েছে।
দীর্ঘদিন ধরে আমদানি বন্ধ থাকার পাশাপাশি হুন্ডি বাজারে উচ্চ মূল্য এবং ব্যাংকগুলোর সমন্বয়হীন দর নির্ধারণ ডলার সংকট আরও ঘনীভূত করেছে বলে মনে করছেন ব্যাংকাররা।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/10/dollar_pic_336826.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2015/10/dollar_pic_336826-300x296.jpgনৃপেন পোদ্দারপ্রথম পাতা
কিছু দিন পর পর রেকর্ড গড়ছে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ। সর্বশেষ হিসাবে যা ছাড়িয়ে গেছে দুই হাজার ছয়শ' কোটি ডলার। এ অবস্থার পরও দেশে নগদ ডলারের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে জরুরি ভিত্তিতে কাগুজে ডলার আমদানির উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। আর এজন্য ডলার আমদানিতে শুল্কমুক্ত সুবিধা চেয়ে জাতীয় রাজস্ব...