আদালত প্রতিবেদক ।
দুর্নীতির মামলায় পাঁচ বছরের কারাদণ্ড মাথায় নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এক সপ্তাহ ধরে কারাগারে আছেন।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।
জিয়া অরফানেজ ট্রাষ্ট মামলায় এ রায় ঘোষণা করার পর অতি জরুরী ভিত্তিতে ওইদিন বিকেলেই সহিমুহুরী নকল চেয়ে আবেদন করা হয়। তবে আজ বৃহস্পতিবার আদালত চলাকালীন সময় পর্যন্ত কোনো জাবেদা নকল পাননি তার আইনজীবীরা। ফলে রবিবার এ মামলায় আপিল করা যাচ্ছে না বলে জানান তার আইনজীবীরা।

খালেদা জিয়ার অন্যতম আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া আদালতের কার্যদিবসের সময় শেষ হওয়ার পর হতাশার সুরে বলেন, ‘রায়ের আদেশের সত্যয়িত অবিকল নকলের কপি দেওয়া হয়নি। নকলখানার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্তৃপক্ষ সকাল থেকেই বলেছেন আজই মিলবে কপি। কিন্তু শেষ মুহুর্তে এসে জানান, ‘আজ সরবরাহ করা গেলো না।’

কবে নাগাদ কপি পাওয়া যাবে এ বিষয়ে নিশ্চিত কিছু জানা গেছে কি না-এমন প্রশ্নে আরেক আইনজীবী নুরজ্জামান তপন বলেন, ‘শুধু সকাল-বিকাল করা হচ্ছে। বিষয়টি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও ষড়যন্ত্রমূলক।’

রায়ের কপির সত্যায়িত অনুলিপি কত দিনের মধ্যে দিতে হয়- এ বিষয়ে কোনো সুনির্দিষ্ট আইন আছে কি না জানতে চাইলে ফৌজদারী মামলার সিনিয়র আইনজীবী আইযুব আহমেদউল্লাহ জীবন বলেন, ‘ এটা আসামির আইনগত অধিকার। কোনো সুনির্দিষ্ট সময় না থাকলেও আবেদনকারীকে অনতিবিলম্বে কপি সরবরাহ করা ন্যায়বিচারের অংশ।’

প্রসঙ্গত, গতকাল বুধবার বিকেলেই খালেদা জিয়ার রায়ের কপি পাওয়া যাবে বলে আশাবাদী ছিলেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। ওইদিন না পেলেও আজ কপি পাওয়ার বিষয়ে সবাই নিশ্চিত ছিলেন। এ জন্য আদালতে সকাল থেকে শেষ সময় পর্যন্ত উপস্থিত ছিলেন।
খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের।

http://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/02/232.jpghttp://crimereporter24.com/wp-content/uploads/2018/02/232-300x254.jpgহাসন রাজাআইন-আদালত
আদালত প্রতিবেদক । দুর্নীতির মামলায় পাঁচ বছরের কারাদণ্ড মাথায় নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এক সপ্তাহ ধরে কারাগারে আছেন।খবর ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমের। জিয়া অরফানেজ ট্রাষ্ট মামলায় এ রায় ঘোষণা করার পর অতি জরুরী ভিত্তিতে ওইদিন বিকেলেই সহিমুহুরী নকল চেয়ে আবেদন করা হয়। তবে আজ বৃহস্পতিবার আদালত চলাকালীন...