image_271871.bangladesh_violence_640x360_ap
বাংলাদেশের পোশাক রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা একটি বড় প্রশ্নবোধক চিহ্ন হয়ে রয়েছে বলে মনে করেন এই শিল্পের মালিকরা।

২০২১ সালের মধ্যে রপ্তানি আয় পাঁচ হাজার কোটি মার্কিন ডলারে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্য নিয়ে তৈরি করা এক রোডম্যাপ প্রকাশের পর তাঁরা এ কথা বলেছেন।

তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ এই রোডম্যাপটি তৈরি করেছে।

এতে বলা হয়, এই লক্ষ্য অর্জন করতে হলে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা এবং যোগাযোগ অবকাঠামোয় দ্রুত বড় ধরণের অগ্রগতি ঘটাতে হবে।

বিজিএমইএ’র বিদায়ী সভাপতি আতিকুল ইসলাম ক্রাইম রিপোর্টার ২৪.কমকে বলেন যে গত বছর ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছরে ৫০ বিলিয়ন ডলার’ আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করার পরপরই রাজনৈতিক অস্থিরতা দেখা দেয়।

এর ফলে বাংলাদেশের যে ইমেজ সংকট হয়েছে, সেখান থেকে উত্তরণ প্রয়োজন বলে তিনি মনে করেন।

মি. ইসলাম বলেন, ৫০ বিলিয়নের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে হলে ব্যাংকের সুদের হার, পণ্য বহুমুখীকরণ, জ্বালানী সরবরাহ – এসব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে।

তিনি বলেন, গত ১০ বছরে বাংলাদেশের পোশাক শিল্পে গড়ে ১৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে, আর ৫০ বিলিয়নের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে হলে প্রবৃদ্ধি হতে হবে বছরে ১১ শতাংশ হারে।

তবে অটোমেটিক বলে কিছু নেই, ঘুমিয়ে থাকলে এই প্রবৃদ্ধি অর্জন করা যাবে না বলে তিনি মন্তব্য করেন।

শুভ সমরাটপ্রথম পাতা
বাংলাদেশের পোশাক রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা একটি বড় প্রশ্নবোধক চিহ্ন হয়ে রয়েছে বলে মনে করেন এই শিল্পের মালিকরা। ২০২১ সালের মধ্যে রপ্তানি আয় পাঁচ হাজার কোটি মার্কিন ডলারে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্য নিয়ে তৈরি করা এক রোডম্যাপ প্রকাশের পর তাঁরা এ কথা বলেছেন। তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ এই...